বিএনপির মতো জোড়াতালি দিয়ে আ.লীগ দেশ চালায় না: তথ্যমন্ত্রী

আপডেটঃ ১১:১৭ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৯, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার: বিএনপির মতো জোড়াতালি দিয়ে আওয়ামী লীগ দেশ চালায় না। টিকা কেনার জন্য কোনো প্রকল্পের বরাদ্দ কমানোর প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর মিন্টু রোডে তার সরকারি বাসভবন থেকে অনলাইনে চট্টগ্রাম জেলা সমন্বয় সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান।
মেগা প্রকল্পগুলোর টাকা কমিয়ে করোনার টিকা সংগ্রহের কাজে লাগানোর জন্য বিএনপি নেতা মোশাররফ হোসেনের প্রস্তাবের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি দেশ পরিচালনায় ব্যর্থ ছিল, সেজন্য তারা এদিক থেকে ‘কাট’ করে ওদিক এভাবে জোড়াতালি দিয়ে দেশ চালিয়েছে।
তাদের সেই জোড়াতালি দিয়ে আমাদের দেশ চালাতে হবে না। প্রধানমন্ত্রী সফলভাবেই দেশ পরিচালনা করছেন।
কোনো জায়গা থেকে কমিয়ে কোনো কিছু করতে হবে না। করোনা মোকাবিলার জন্য বিশেষত: করোনার টিকা কেনার জন্য পর্যাপ্ত টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।
দরিদ্র জনগোষ্ঠীর প্রতি নজর দেওয়া নিয়ে বিএনপি মহাসচিবের পরামর্শের বিষয়ে জানতে চাইলে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সরকার প্রথম দফা ‘লকডাউনের’ সময় ৭ কোটির বেশি মানুষকে সহায়তা দিয়েছে। ইতোমধ্যে আরও কয়েক কোটি মানুষকে সহায়তা দেওয়া হয়েছে। এ সহায়তা চলমান রয়েছে। একইসঙ্গে আমাদের দলের পক্ষ থেকেও পর্যাপ্ত পরিমাণ সহায়তা দেওয়া হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দলের সব নেতাকর্মীদের জনগণের পাশে থাকতে বলেছেন এবং সেই আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমাদের দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে।
মন্ত্রী বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেব তো জনগণের পাশে দাঁড়াননি, শুধু টেলিভিশনেই বক্তব্য দেন আর মাঝে মধ্যে অনলাইনে উঁকি দিয়ে বক্তব্য দেন, সে কারণেই তারা এ কথাগুলো বলছেন। দেশে কী কোনো হাহাকার আছে! আজকে ১৬ মাস করোনা বাংলাদেশে আঘাত হেনেছে, একজন মানুষ তো না খেয়ে মৃত্যুবরণ করেনি। এটিই হচ্ছে সরকারের সফলতা। আমরা ইনশাআল্লাহ এ পরিস্থিতিও মোকাবিলা করতে পারবো। আমি মির্জা ফখরুল সাহেবকে বলবো এ ধরনের পরামর্শ না দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়ানোর জন্য।
পরে টিভি নাট্য পরিচালকদের সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ড এবং অভিনয় শিল্পী সংঘের নেতারা ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে তার বাসভবনে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। চলচ্চিত্র শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আইন ২০২১-এর আওতায় প্রযোজ্য ক্ষেত্রে টেলিভিশন শিল্পীদের অন্তর্ভুক্ত করায় মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানান তারা।
এ সময় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মকবুল হোসেন, ফেডারেশন অব টেলিভিশন প্রফেশনালস অর্গানাইজেশনস-এফটিপিওর চেয়ারম্যান নাট্য ব্যক্তিত্ব মামুনুর রশীদ, ডিরেক্টরস গিল্ড সভাপতি সালাউদ্দিন লাভলু, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সাগর, অভিনয় শিল্পী সংঘের সভাপতি শহীদুজ্জামান সেলিম, সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম ও প্রেজেন্টারস প্ল্যাটফর্মের সাধারণ সম্পাদক আনজাম মাসুদ উপস্থিত ছিলেন।