পরকীয়ার জেরে বাবা-ছেলেকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ

আপডেটঃ ৯:০২ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২৬, ২০২১

নাঈমুল হাসান,টঙ্গী: গাজীপুরের টঙ্গীতে পরকীয়ার জেরে বাবা ও ছেলেকে পিটিয়ে জখমের অভিযোগ উঠেছে এক যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে। রবিবার রাত দশটার দিকে বিসিক সালামের আটার কল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় মহানগরীর ৪৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা খলিল গাজীসহ চারজনকে অভিযুক্ত করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন তারা।

ঘটনার পর স্থানীয়রা আহত বাবা শাখাওয়াত হোসেন খান(৪৫) ও তার ছেলে পলাশ খানকে (২০) উদ্ধার করে টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টার জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

আহত সাখাওয়াত হোসেন জানান, রবিবার রাত দশটার দিকে আমি জানতে পারি আমার ছেলে পলাশকে সালামের আটারকল এলাকায় যান তারা। খবর পেয়ে আমি সেখানে যাই।দেখা হয় যুবলীগ নেতা খলিল গাজীর সাথে। পরে খলিলের সঙ্গে থাকা কামরুল, প্রিন্স,ছাত্রলীগ নেতা আশিকুর রহমান তারেক,সিরাজ মনিরসহ বেশ কয়েকজন আমাদের পিটিয়ে জখম করে। আমার ছেলে শাওনকে পাশের বাড়িতে আটকে ইট ও লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা থেতলে দেয়। আমাকেও দড়ি দিয়ে বেধে পেটানো হয়। আমি থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।

আহত পলাশ বলেন, কয়েক বছর আগে তারেকের স্ত্রীর সঙ্গে ফেইজবুকে পরিচয় হয়। পরে আমি জানতে পারি সে বিবাহিত। পরে আমরা সিন্ধান্ত নেই পালিয়ে আসতে।গত কয়েকদিন আগে বাসা থেকে পালিয়ে এসে টঙ্গীর মধুমিতা এলাকায় একটি বাসায় আমরা থাকতে শুরু করি। রবিবার রাতে যুবলীগ নেতা খলিল গাজীসহ কয়েকজন এসে আমাদের ধরে নিয়ে গিয়ে আমাকে ও আমার বাবাকে মারধর করে।

অভিযুক্ত খলিল গাজী মারধরের বিষয়টি অস্বীকার করে বলেন, তারেকের স্ত্রীর পরকীয়ায় প্রেম চলছিলো। পলাশকে বেশ কয়েকবার সতর্ক করেছি। নিউজ করার দরকার নাই,আসেন ভাই টিএনটি বাজার চা খাই।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) দেলোয়ার হোসেন বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।

 

সিএনএ নিউজ/জামান