মামুনুল ইস্যুতে ফেসবুকে লাইভ, সেই এএসআই প্রত্যাহার

আপডেটঃ ৭:১১ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ০৫, ২০২১

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি : পোশাক পরিহিত অবস্থায় ফেসবুক লাইভে এসে মিডিয়া ও সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার এবং হেফাজত নেতা মামুনুল হকের পক্ষে কথা বলার অভিযোগে পুলিশের সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) গোলাম রাব্বানীকে প্রত্যাহার করা হয়।

প্রত্যাহারের পর রবিবার তাকে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়েছে। গোলাম রাব্বানী কুষ্টিয়ার ইন সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে কর্মরত ছিলেন।

সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন একাধিক কর্মকর্তা ঢাকাটাইসমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তারা জানান, পোশাক পরিহিত অবস্থায় কেন তিনি এমন কাজ করেছেন পুলিশ লাইনস্ এ সংযুক্ত’র পর তাকে সে ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এরপর তার (এএসআই) বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

৩ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ের একটি রিসোর্টে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে তার দ্বিতীয় স্ত্রীসহ অবরুদ্ধ করেন স্থানীয়রা। ঘটনার পরদিন ফেসবুক লাইভে এসে এএসআই গোলাম রাব্বানী বলেন, কালকে মোবাইলে দেখলাম মামুনুল হক হুজুরের একটি ভিডিও। যে ভিডিওতে তিনি তার স্ত্রীকে নিয়ে একটা রিসোর্টে গেছেন। সেখানে আমার প্রশ্ন হলো, যে অধিকাংশ সাংবাদিকরা তার কাবিননামা দেখতে চাচ্ছে। আপনাকে এই অধিকার কে দিয়েছে? আপনি যে কাবিননামা দেখবেন আপনাকে এই অধিকার কি রাষ্ট্র দিয়েছে? কোন সাংবাদিকদের যদি জানা থাকে এই ধরণের আইনসঙ্গত বিষয় তবে আমাকে জানান। আমি তো পুলিশে চাকরি করি। আমার এটা জানা নেই। তিনি যদি স্ত্রী ব্যতীত অন্য কাউকে নিয়ে যেত তাহলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া যেত। তিনি একজন আলেম মানুষ। তাকে একটা ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এভাবে হেনস্তা করা হয়েছে।

পুলিশের পোশাক পরিহিত অবস্থায় ফেসবুক লাইভে এসে হেফাজত নেতার পক্ষে গুণকীর্তনের ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এমন অপেশাদার বক্তব্যের পর তাকে পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়।