একুশের ভোরে সড়কে ঝরলো ৬ প্রাণ

আপডেটঃ ১২:০২ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১

বগুড়া সংবাদদাতা: বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে পাথরবোঝাই ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনায় উভয়গাড়ীর চালকসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন। এতে আহত হয়েছেন আরো অন্তত ১৫ জন। তাদেরকে বগুড়ায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
রবিবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টার দিকে উপজেলার ঢাকা-বগুড়া মহাসড়কের পৌরশহরের কলেজ রোড নামক স্থানে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তবে হতাহতদের তাৎক্ষণিক পরিচয় মেলেনি।
মহাসড়কের মধ্যে দুর্ঘটনা কবলিত বাস ও ট্রাক উল্টে পড়ে থাকার কারণে যানচলাচল বন্ধ রয়েছে। এতে সড়কের উভয়পাশে অসংখ্য যানবাহন আটকে তিন কিলোমিটার তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশের যৌথ উদ্ধার অভিযান চলছিল।
শেরপুর ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার রতন হোসেন জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা বগুড়াগামী এসআর ট্রাভেলস পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস পৌরশহরের কলেজ রোড নামক স্থানে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা পাথরবোঝাই ট্রাকের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের চালক, হেলপার ও ট্রাকের চালকসহ মোট ছয়জন নিহত হন।
রতন হোসেন আরো জানান, এ দুর্ঘটনায় আহত হন আরও ১৫ যাত্রী। তাদেরকে প্রথমে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি ঘটলে বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।
তবে তাৎক্ষণিক হতাহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি বলেও জানান এই স্টেশন কর্মকর্তা।