দুর্বল অবকাঠামোর কারণেই ধসে পড়ে ভবনটি

আপডেটঃ ৭:৪৪ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর পাশে কেরানীগঞ্জে পূর্বচরাইল খেলার মাঠ এলাকায় ভেঙে পড়া তিন তলা ভবনটির অবকাঠামো ছিল খুবই দুর্বল। এ কারণেই খালের পাশে নির্মিত বাড়িটি ধসে পড়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। ইতিমধ্যে বাড়িটির আশপাশের পাঁচটি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষণা করেছে প্রশাসন। ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ভবনগুলো পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়। এসব ভবনের গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়া হয়েছে।

কেরানীগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সানজিদা পারভিন্ন তিন্নি শুক্রবার বিকাল পৌনে পাঁচটার দিকে বলেন, ‘ঘটনার পরে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। ধসে পড়া বাড়ি থেকে সাতজনকে উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে নারী, শিশু ও পুরুষ রয়েছে। তাদের স্থানীয় হাসপাতালসহ তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।’

এসিল্যান্ড বলেন, ‘এই ঘটনার পরে আমরা পাশের আরও একটি বাড়ির দেয়ালে ফাটল দেখতে পাই। পরে উপজেলা প্রশাসন, কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, পল্লি বিদ্যুৎ ও তিতাসের কর্মকর্তাদের নিয়ে পাশের কয়েকটি বাড়ি পরিদর্শন করি। এর মধ্যে পাঁচটি বাড়ি পরিত্যক্ত ঘোষণা করে বাড়িগুলোতে বসবাসরত সবাইকে দ্রুত বাড়ি খালি করে দিতে বলা হয়। এছাড়া কয়েকটি বাড়ির জমির কাগজ নিয়ে সন্দেহ হওয়ায় আমরা তাদের কাগজ পরীক্ষার নির্দেশ দেয়া হয়।’

সানজিদা পারভিন্ন তিন্নি জানান, বাড়ি ধসের কারণ এবং ওই এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণ কয়েকটি বাড়ির বিষয়ে সঠিক তথ্য জানার জন্য সাত সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া যে বাড়িগুলোকে পরিত্যক্ত করা হয়েছে সেই বাড়িগুলোর বিদ্যুৎ ও গ্যাসের লাইন তাৎক্ষণিকভাবে বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।’

বাড়ি ধসের বিষয়ে কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. ফারুক আহমেদ  বলেন, বাড়ি ধসে ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা পাঁচজনকে উদ্ধার করেছে। আর বাকি দুজন ঘটনার পরপর নিজেরাই বেরিয়ে এসেছেন। বাড়িতে আটকা পড়া পাঁচজনকে ধসে পড়া বাড়ির গ্রিল কেটে উদ্ধার করা হয়। তারা সবাই আহত। তাদেরকে স্থানীয় হাসপাতালসহ কয়েকটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন। সবাই ঝুঁকিমুক্ত আছেন।

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা বলেন, বাড়িটি ধসে পড়ার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে দুর্বল অবকাঠামো। এছাড়া খালের পাড়ে এই বাড়িগুলো ‍ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় তৈরি করা হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন পাঁচটি বাড়ির লোকজনকে সরিয়ে তালা মেরে দিয়েছে।

এর আগে সকাল আটটার কিছু আগে পূর্বচরাইল এলাকায় একটি আবাসিক ভবন ধসে পড়ে। এ ঘটনায় সাতজনকে উদ্ধার করা হয়। তাদের মধ্যে দুজনকে মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার কার্যক্রম চালায় ফায়ার সার্ভিসের ছয়টি ইউনিট।