নিজের দল থেকে বহিষ্কার নেপালের প্রধানমন্ত্রী

আপডেটঃ ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ২৫, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নেপালের প্রধানমন্ত্রীকে বহিষ্কার করেছে তার দল নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি। দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ এনে বহিষ্কার করা হয়েছে কার্য নির্বাহী প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলিকে।

ওলির বিরুদ্ধে দল বিরোধী অভিযোগ তুলে এনসিপি নেতা মাধব নেপাল ও পুষ্প কুমার দাহাল(প্রচণ্ড) দুই নেতার নির্দেশে ওলি বহিষ্কার সিদ্ধান্ত সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়েছে। নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির মুখপাত্র নারায়ণ কাজি শ্রেষ্ঠা জানিয়েছেন,দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে ওলির সদস্যপদ খারিজ করা হয়েছে। খবর কাঠামান্ডু পোস্টের

অভিযোগ, ওলি ক্ষমতা কুক্ষিগত করতে চেয়েছিলেন। চুক্তি মতো এনসিপি অপর গোষ্ঠী পূর্বতন নেপালি মাওবাদী পার্টির নেতা প্রচণ্ড কে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে চাননি। এর ফলে নেপালি কমিউনিস্ট পার্টির মধ্যে তীব্র হয় মতবিরোধ। এই বিরোধিতা চলার মাঝেই পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার ক্ষমতা প্রয়োগ করেছিলেন বহিষ্কৃত ওলি। তার চাপে প্রেসিডেন্ট বিদ্যাদেবী ভাণ্ডারি পার্লামেন্ট ভেঙে দেন।

এই রাজনৈতিক অস্থিরতার মাঝে রবিবার কার্যনির্বাহী প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলিকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি।

এনসিপি তে ওলি বিরোধী গোষ্ঠীর অন্যতম নেতা মাধব কুমার নেপাল জানিয়েছেন, আমরা দলের চেয়ারম্যানের পদ থেকে ওলি কে বহিষ্কার করেছি। তার বিরুদ্ধে নীতিগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কারণ ওলি আর কমিউনিস্ট পার্টির সদস্য থাকার যোগ্য নন। তাকে জবাবদিহি করতে হবে।

তিন বছর আগে নির্বাচনে বিপুল জয়লাভ করে নেপালে কমিউনিস্ট পার্টি ও মাওবাদীদের জোট এনসিপি। প্রধানমন্ত্রী হন ওলি। তবে চুক্তি ছিল পাঁচ বছরের মেয়াদে আড়াই বছর করে দুই দলের প্রধানমন্ত্রী হবে পর্যায়ক্রমে। সেই শর্ত উপেক্ষা করে মাওবাদী নেতা প্রচণ্ডের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে অস্বীকার করেন ওলি।