খুলনায় পু‌লি‌শ কর্মকর্তার শিশু সন্তান হত‌্যায় মামলা

আপডেটঃ ২:০৩ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ০১, ২০২০

সি এন এ প্রতিবেদক: খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলার ফুলতলা গ্রামে পুলিশ কর্মকর্তার পাঁচ বছর বয়সী ছেলে জশ মন্ডলকে হত্যায় নিহতের কাকা অনুপ মন্ডলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিহত শিশুর মাকে নেয়া হয়েছে পুলিশ হেফাজতে। জিজ্ঞাসাবাদে মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাদের রিমান্ড আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা উজ্জল কুমার দত্ত।

‘পরকীয়া’র জের ধরে শিশু জশ মন্ডলকে (৫) হত্যা করা হয়েছে বলে মামলার বাদী নিহতের বাবা এএসআই অমিত মন্ডল এজাহারে অভিযোগ করেছেন।

গত সোমবার ভোরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গেই নিহত শিশুর কাকা অনুপ মন্ডল ও তার মা তনুশ্রীকে পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়।

বটিয়াঘাটার ফুলতলা গ্রামের অমিত মন্ডল পুলিশের এএসআই হিসেবে ঢাকার বাড্ডা থানায় কর্মরত। সঙ্গে থাকেন স্ত্রী তনুশ্রী মন্ডল ও একমাত্র ছেলে জশ (৫)। গত রবিবার রাত ৮টার দিকে তনুশ্রী ও তার ছেলে জশ ফুলতলা গ্রামে রাসপুজায় বেড়াতে আসেন। সোমবার সকালে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে শিশু জশ মন্ডলের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এসময় জশের কাকা অনুপ মন্ডল পাশে বসে ছিলেন।

মামলার বাদী পুলিশ কর্মকর্তা অমিত কুমার মন্ডল জানান, গত রাতে তিনি বটিয়াঘাটা থানায় তার একমাত্র ভাই অনুপ মন্ডলের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামি করে মামলা করেছেন। ২০১৫ সালে তার স্ত্রী তনুশ্রীর সঙ্গে ভাই অনুপ মন্ডলের অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি জানাজানি হলে তিনি স্ত্রীকে নিয়ে কর্মস্থলের পাশে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করতেন। সেই সম্পর্কের জের ধরে শিশু জশকে হত্যা করা হয়েছে বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে। এর আগেও এই শিশুকে অনুপ মন্ডল হত্যার চেষ্টা করেছিলেন বলে অভিযোগ করেন বাদী।

বটিয়াঘাটা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) উজ্জল কুমার দত্ত বলেন, আসামিকে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ড আবেদন করা হবে। নিহত শিশুর মরদেহ এখনো খুমেক হাসপাতালের মর্গে রয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ তার বাবার কাছে হস্তান্তর করা হবে।

বটিয়াঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল কবির জানান, হত্যার রহস্য উদঘাটনে দ্রুত তদন্ত প্রক্রিয়া চলছে।