বাউফলে কারখানা নদীর অব্যাহত ভয়াবহ ভাঙ্গনের শিকার পরিবারগুলো সহায় সম্বল হারিয়ে এখন নিঃস্ব

আপডেটঃ ৬:১২ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১০, ২০২০

বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃপটুয়াখালীর বাউফলে কাছিপাড়া ইউনিয়নের কারখানা নদীর অব্যাহত ভয়াবহ ভাঙ্গনে বিলিন হচ্ছে আবাদি জমি, বাড়ি ঘর ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এই নদীর তীরবর্তী মানুষগুলো এখন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। গত কয়েক দিনে শতাধিক ভিটাবাড়ি নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ায় পরিবার গুলো সহায় সম্বল হারিয়ে এখন নিঃস্ব।

জানা গেছে, বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার পর কারখানা নদীর ভাঙ্গন ভয়াবহ আকার ধারণ করে। বাহেরচর ল ঘাট থেকে পশ্চিম-কাছিপাড়া পর্যন্ত কারখানা নদীর অব্যাহত ভাঙ্গন অব্যহত রয়েছে। ওই সব এলাকার মানুষজন এখন ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা পেতে তাদের বাড়ি-ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অনত্র সরিয়ে নিচ্ছেন।

সরেজমিন কারখানা, পশ্চিম কাছিপাড়া ও বাহেরচর ল ঘাট এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে, কারখানা নদীর হিংস্্র থাবায় বাহেরচর ল ঘাট থেকে দক্ষিন ও পশ্চিম কাছিপাড়া, কারখানা ল ঘাট পর্যন্ত কয়েকশ হেক্টর আবাদি জমি, বসতবাড়ি, ঈদগা মাঠ, বৈদ্যুতিক খাম্বাসহ বহু গাছগাছালি, নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। বিশেষ করে কাছিপাড়া ইউনিয়নের ১ ও ২ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত ৩টি সরকারি প্রাইমারী স্কুল ও একটি কমিউনিটি ক্লিনিক ভয়াবহ ভাঙ্গনের মুখে পরেছে।

কাছিপাড়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সেলিম হাওলাদার বলেন,‘আমার ১ নং ওয়ার্ডের প্রায় ৪০-৫০ টি পরিবার নদীর ভাঙ্গনে সহায় সম্বল হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে গেছেন। তাদের ফসিল জমি বিলীন হয়ে গেছে । তারা এখন কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। পশ্চিম-কাছিপাড়ার আকন বাড়ি ও খান বাড়ি মুর্হূতের মধ্যে কারখানা নদীতে বিলিন হয়ে গেছে।

স্থানীয়রা কারখানা নদীর ভয়াবহ ভাঙ্গন রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সিএনএ নিউজ/জামান