নরসিংদীতে নারী কেলেংকারী মামলায় বরখাস্তকৃত এস,আই জিয়া’র জামিন না-মুঞ্জুর ২ সন্তানের জননী আসামী পারভীন’র জামিন মুঞ্জুর

আপডেটঃ ১১:২০ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০১৭

এম,এ,সালাম রানা,সি এন এ  নিউজ,নরসিংদী ঃনরসিংদী’র বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ ফাতেমা নজীব রায়পুরা থানার নারী কেলেংকারীর ঘটনায় বরখাস্তকৃত এস,আই জিয়াউর রহমান জিয়া’র জামিন আবেদন নাকচ্ করে দিয়েছে। অপরদিকে একই ঘটনায় অভিযুক্ত ২ সন্তানের জননী আসামী পারভীন’র জামিন আবেদন মুঞ্জুর করেছে আদালত। নরসিংদী’র অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল আদালতে বরখাস্তকৃত এস,আই, জিয়া জামিন লাভে ব্যর্থ হয়ে জামিন পাওয়ার আশায় ২২ জানুয়ারী রোববার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলাটির জামিন শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। উভয়পক্ষের শুনানী শেষে আদালত রায়পুরা থানার নারী কেলেংকারীর ঘটনায় আসামী পারভীন’র জামিন আবেদন মুঞ্জুর করলেও বরখাস্তকৃত এস,আই, জিয়ার জামিন আবেদন না-মুঞ্জুর করে।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার নরসিংদী’র অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল আদালতে বিচারাধীন নারী-কেলেংকারীর চাঞ্চল্যকর ঘটনার মামলায় বরখাস্তকৃত এস,আই জিয়াসহ অভিযুক্তদের শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ৪ জানুয়ারী বুধবার আপোষের শর্তে বাদী-বিবাদীর মাঝে মিমাংসা হওয়ার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত আসামীপক্ষ প্রদেয় শর্তে সম্মতি জ্ঞাপন না করায় শুনানী ব্যতিরেকেই বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ ওয়াহিদুজ্জামান ফেরদৌস মামলায় অভিযুক্ত উভয় আসামীর জামিন আবেদন পূনরায় না-মুঞ্জুর করে তাদের জেল-হাজতে পাঠায়।
১৯ ডিসেম্বর সোমবার সকাল ১০ টায় নরসিংদী সদর মডেল থানা পুলিশ অভিযুক্ত ২ সন্তানের জননী পারভীনসহ আলোচিত নারী-কেলেংকারী বরখাস্তকৃত এস,আই জিয়াকে গ্রেফতার করে। ধৃত ২জনকে করে সদর মডেল থানা পুলিশ একই দিন সন্ধ্যায় নরসিংদী’র বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করে।
২০ ডিসেম্বর মঙ্গলবার নরসিংদী’র বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আসামীপক্ষে জামিন আবেদন করলে আদালত ১ম দফার জামিন আবেদন না-মুঞ্জুরসহ অভিযুক্তদের কারাগারে প্রেরণ করে। এরই ধারাবাহিকতায় ২৬ ডিসেম্বর সোমবার নারী-কেলেংকারীর ঘটনায় জড়িত আলোচিত বরখাস্তকৃত এস,আই জিয়াসহ অভিযুক্তদের মামলার পরবর্তী শুনানীর দিন ধার্য করেন।
এ ঘটনায় পারভীনের মর্মাহত স্বামী মানিক মিয়া নরসিংদী’র বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করে। যার নরসিংদী সি,আর মামলা নং – ১২১৮/২০১৬ এবং নরসিংদী সদর মডেল থানার মামলা নং- ৩০(১২)২০১৬।
এদিকে, বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক আগামী ২৭ জানুয়ারী বিচারাধীন মামলার নির্ধারিত তারিখ ছিল। কিন্তু আসামীপক্ষের আইনজীবীদের একের পর এক অব্যাহত জামিন আবেদন দাখিল করায় নির্ধারিত তারিখের পূর্বেই ৩ জানুয়ারী মঙ্গলবার অভিযুক্তদের জামিন আবেদনের শুনানী আদালত পূনরায় জামিন না-মুঞ্জুর করেন। আদালত জামিন না-মুঞ্জুর করায় উভয়পক্ষের আইনজীবীদের আপোষের আবেদনের প্রেক্ষিতে বিজ্ঞ বিচারিক আদালত বাদী-বিবাদীদেরকে মিমাংসা হওয়ার আদেশ প্রদান করেন। এর ফলে ৪ জানুয়ারী বুধবার আপোষের শর্তে আসামীপক্ষ সম্মতি জ্ঞাপন না করায় অবশেষে শুনানী ব্যতিরেকেই বিজ্ঞ আদালত অভিযুক্ত উভয় আসামীরদ্বয়কে জেল-হাজতে পাঠায়।
অবশেষে, নরসিংদী’র অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল আদালতে বরখাস্তকৃত এস,আই, জিয়া জামিন লাভে ব্যর্থ হয়ে জামিন পাওয়ার আশায় ২২ জানুয়ারী রোববার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলাটির জামিন শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। উভয়পক্ষের শুনানী শেষে আদালত রায়পুরা থানার নারী কেলেংকারীর ঘটনায় আসামী পারভীন’র জামিন আবেদন মুঞ্জুর করলেও বরখাস্তকৃত এস,আই, জিয়ার জামিন আবেদন না-মুঞ্জুর করে।