হানিফের বক্তব্য ব্যক্তিগত : রিজভী

আপডেটঃ ১০:২৮ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০১, ২০১৬

সি এন এ  নিউজ,প্রতিবেদক : ৭ নভেম্বর বিএনপিকে কোন কর্মসূচি পালন করতে দেওয়া হবে না- আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফের বক্তব্য সম্পূর্ণ তার ব্যক্তিগত। এটা সরকারের বক্তব্য নয়- বলে জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।
নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মঙ্গলবার ( ১ নভেম্বর) তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি সরকার ৭ই নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপিকে সমাবেশ করার অনুমতি দেবে। সে সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।’
রিজভী বলেন, ‘৭ নভেম্বর স্বাধীনতা সুরক্ষা ও আওয়ামী লীগের পুনর্জন্ম হয়েছে। এ দিন আওয়ামী লীগের একদলীয় শাসনতন্ত্র থেকে বহুদলীয় শাসন ব্যবস্থা শুরু হয়েছিল। এ রকম একটা দিন নিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের বক্তব্য অনাকাঙ্খিত।’

এসময় তিনি অভিযোগ করে বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পবিত্র কাবা শরীফ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর ছবি পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে সুপরিকল্পিতভাবে সাম্প্রদায়িকতাকে উস্কে দেওয়া হয়েছে। উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ওই এলাকায় হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর আক্রমণের মাধ্যমে যে ভীতি ও আতঙ্কের পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে তা নজিরবিহীন। এই ঘটনা সামাজিক শান্তি, স্থিতিশীলতা ও ধর্মীয় স্বাধীনতার ওপর নগ্ন হস্তক্ষেপ।

মুসলমানের ধর্মীয় চেতনায় আঘাতের ঘটনার তীব্র ধিক্কার ও নিন্দা জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘সামাজিক গণমাধ্যম ফেসবুকে পবিত্র কাবা শরীফকে নিয়ে যে অবমাননাকর ও ধৃষ্টতাপূর্ণ পোস্ট দিয়েছে, তাকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় নিয়ে এসে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, সহ দপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন প্রমুখ।