পাকিস্তানে পৃথক আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ১৫

আপডেটঃ ১:৪২ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০২, ২০১৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পাকিস্তানে পৃথক আত্মঘাতী বোমা হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৪১ জন। শুক্রবার দেশটির নাজিম হিমায়াতুল্লাহ জেলার মারদান শহরের জেলা আদালতে বড় হামলাটি চালানো হয়ে।

এ ঘটনার মাত্র কয়েক ঘন্টা আগে পেশওয়ারে খ্রিস্টান কলোনিতে হামলা চেষ্টাকালে চার আত্মঘাতী হামলাকারীসহ পাঁচজন নিহত হয়েছে।

মারদানের পুলিশ জানিয়েছে, আত্মঘাতী বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটানোর আগে হামলাকারী একটি হাত বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

পুলিশ কর্মকর্তা ফয়সাল শেহজাদ বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, সকালে বেশ ভীড় থাকা আদালত প্রাঙ্গনে এ হামলা চালানো হয়। এতে কমপক্ষে ১০ জন নিহত হযেছে। নিহতদের মধ্যে একজন পুলিশ সদস্যও রয়েছে।

অপরদিকে একই দিন দক্ষিণ পেশওয়ারের ওয়ারসাক দাম এলাকার কাছে খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের একটি কলোনিতে আত্মঘাতী হামলার চেষ্টার ঘটনা ঘটেছে। এতে চার হামলাকারী এবং এক বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে।

পাকিস্তান সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে বলেছে, ‘ভোর ৫টা ৫০ মিনিটে নিরাপত্তা প্রহরীকে হত্যার পর চার আত্মঘাতী হামলাকারী অস্ত্র ও গোলাবারুদ নিয়ে ওয়ারসকতে খ্রিস্টান কলোনিতে প্রবেশ করে।নিরাপত্তা বাহিনী খবর পেয়ে দ্রুত এলাকাটি ঘিরে ফেলে। এসময় সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গুলি বিনিময় হলে  তাদের চারজনই নিহত হয়। পরিস্থিতি বর্তমানে নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। আর কোনো সন্ত্রাসী ভেতরে রয়ে গেছে কি-না তা দেখতে ওই এলাকার প্রতিটি ঘরে ঘরে তল্লাশি চালানো হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, পাকিস্তানে প্রায়ই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে। চলতি বছরের ইস্টার উৎসবে লাহোরের একটি বিনোদন কেন্দ্রে তালেবান পরিচালিত আত্মঘাতী হামলায় ৭০ জন নিহত হয়েছিল।