যে কারণে ঘটেছে চট্টগ্রামের ভয়াবহ সেই ট্রেন দুর্ঘটনা

আপডেটঃ ৯:০১ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৯, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার : ট্রেন আসার আগেই গেটবার নামিয়ে দেন গেটম্যান। এর মধ্যেই গেটবার সরিয়ে ঢোকার চেষ্টা করে মাইক্রোবাস। গেটম্যান না করলেও জোর করেই ঢুকে পড়েন রেললাইনে। আর মুহূর্তেই ট্রেন এসে কেড়ে নেয় মাইক্রোবাসের ১১ যাত্রীর প্রাণ।
শুক্রবার (২৯ জুলাই ২০২২) দুপুরে চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলার বড়তাকিয়া রেলস্টেশন এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় এখন পর্যন্ত মাইক্রোবাসের ১১ যাত্রী নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরো ৪ জন।
তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের পরিচয় জানা যায়নি। তবে তাদের সবার বাড়ি হাটহাজারীর আমানবাজার এলাকায় বলে জানা গেছে।
স্থানীয়রা জানায়, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা মহানগর প্রভাতী ট্রেন পর্যটকবাহী মাইক্রোবাসটিকে ধাক্কা দেয়। এতে মাইক্রোবাসের ১১ জন যাত্রী নিহত হন। এছাড়া আহত হন আরো কয়েকজন। তারা সবাই খৈয়াছড়া ঝরনা দেখতে যাচ্ছিলেন।
এদিকে, মাইক্রোবাসটি যখন রেললাইনের কাছে পৌঁছায়, তখন গেটবার নামানো ছিল বলে জানিয়েছেন রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের জিএম মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। কিন্তু মাইক্রোবাসের চালক নিজেই সেটি তুলে লাইনে ঢোকেন বলে গেটম্যানের বরাতে জানান তিনি।
জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ওই এলাকায় একজন গেটম্যান নিযুক্ত রয়েছেন। দুর্ঘটনার পরই আমরা তার সঙ্গে কথা বলেছি। ট্রেন আসার আগেই গেটবারটি নামানো হয়েছিল বলে তিনি আমাদের জানিয়েছেন। কিন্তু মাইক্রোচালক জোর করে সেটি তুলে রেললাইনে ঢোকেন। এরপরই দুর্ঘটনাটি ঘটে। তবে আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।