পুঠিয়ার রোহানা মেডিকেলে চান্স পেয়েও ভর্তি অনিশ্চয়তায় পড়েছে

আপডেটঃ ৮:৫১ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২০, ২০২২

পুঠিয়া (রাজশাহী) সংবাদদাতা : রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার তেলী পড়া গ্রামের রুহানা আক্তার রিঙ্কি মেডিকেলে চাঞ্চ পেয়েও ভর্তি অনিশ্চয়তায় রয়েছেন। দারিদ্রতাকে জয় করে তিনি এ অসাধ্যমে সাধন করেছেন। সদ্য প্রকাশিত এমবিবিএস পরীক্ষার উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি। এতে বাবা-মা শিক্ষকসহ পুরো এলাকাবাসী আনন্দিত। তবে শঙ্কায় রয়েছে রুহানার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন। দারিদ্রতার সাথে প্রতিনিয়ত লড়াই করে চলতে হয় রুহানার পরিবারকে। তাই রুহানার পরিবারের পক্ষে তার ভর্তি ও পড়াশোনার খরচ চালিয়ে যাওয়া অতি কষ্টকর রুহানা আক্তার রিঙ্কি পুঠিয়া উপজেলার ভালুকগাছি ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামের রফিকুল ইসলাম ও রিনা খাতুনের মেয়ে। রফিকুল ইসলাম পেশায় কৃষক ও মা রিনা গৃহিনী। রুহানা চকদোমাদি আইনুল উলুম আলিম মাদ্রাসা থেকে বিজ্ঞান বিভাগ হতে জিপিএ-৫ এবং উপজেলার বানেশ্বর নাদের আলী স্কুল এন্ড কলেজ থেকে বিজ্ঞান বিভাগ হতে এইচ.এস.সি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে। রুহানা ৭৯ নম্বর পেয়ে যশোহর মেডিকেল কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েও পরিবারের মধ্যে তার ভর্তি ও পড়াশোনার খরচ নিয়ে চলছে অনিশ্চয়তা। মামা ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সহযোগিতায় এ পর্যন্ত এসেছে বলে রুহানা জানিয়েছেন। রুহানার পড়াশোনার খরচ চালাতে সমাজের বিত্তবান ব্যক্তি এগিয়ে না আসলে ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন তার অধরাই রয়ে যাবে পরিবারের দাবি।