মদনে বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে আমন ধানের ক্ষতি

আপডেটঃ ৫:৫৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

মদন(নেত্রকোনা)সংবাদদাতা: বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে মঙ্গলবার হঠাৎ করে নেত্রকোনার মদন উপজেলার সদ্য রোপনকৃত নিম্না লের আমন জমিতে পানি প্রবেশ করে ২০ হেক্টর জমির আমনের চারা তলিয়ে গেছে। বাকী জমিও হুমকির মুখে রয়েছে। বর্ষণ ও পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় আমন কৃষকগণ শঙ্কিত হয়ে পড়েছেন। এবার বোরো ধানের বাম্পার ফলন ও ভালো দাম পেয়ে এলাকার কৃষকগণ আমন ধান চাষের ওপর মনোযোগ দেয়।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি আমন মৌসুমে মদন পৌরসভাসহ উপজেলার ৮ ইউনিয়নে ১১ হাজার ৭শ ৫০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়। এর মধ্যে ১০ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন রোপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার হঠাৎ পানি বৃদ্ধি পেয়ে রোপনকৃত ২০ হেক্টর আমন জমি তলিয়ে গেছে। আরো বহুজমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে। তবে কৃষকদের মতে তলিয়ে যাওয়া জমির পরিমাণ আরো অনেক বেশী। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় আমন চাষে বাম্পার ফলনের আশা ছিলো কৃষকদের। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন আমন চাষীরা।

আমনচাষী কৃষক ফতেপুর গ্রামের আলাল মিয়া, ইঞ্জিল খান, রুবেল তালুকদার, রাজিব মিয়া,সাইতপুর গ্রামের জালাল উদ্দিস,তরুন মিয়া জানান, বোরো ধানের বাম্পার ফলন ও দাম ভালো পেয়েছিলাম। তাই বন্যায় বীজ তলা নষ্ট হওয়ার পরেও অধিকদামে চারা কিনে অনেক আশা নিয়ে অন্যান্য বছরের তুলনার অধিক জমিতে আমন ধান রোপন করেছিলাম। বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে আমাদের রোপনকৃত ১০ একর জমির অর্ধেক তলিয়ে গেছে বাকী জমিও হুমকির মুখে রয়েছে। পানি যেভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে সব জমি তলিয়ে যাবার আশঙ্কা রয়েছে। সব ফসল তলিয়ে গেলে আমাদের পরিবারে চরম দূরাবস্থা দেখা দিবে।

ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে অত্র ইউনিয়নের কয়েকটি হাওরে মঙ্গলবার হঠাৎ পানি প্রবেশ করে প্রায় ৫০ হেক্টর রোপনকৃত আমন জমি তলিয়ে গেছে। শতাধিক হেক্টর জমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে।

তিয়শ্রী ইউপি চেয়ারম্যান ফকর উদ্দিন আহমেদ জানান,গত কয়েকদিন আগে আমনবীজ তলিয়ে গেছে, এমনিতেই কৃষক বেশি দামে আমন রোপন করেছে এর মধ্যে আবার ডুবে যাচ্ছে এ নিয়ে কৃষকরা খুবই দুঃশ্চিন্তায় আছে। আমি কৃষকদের সাথে যোগাযোগ রেখে উপজেলা প্রশাসনকে কৃষকদের ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে অবগত করছি।

মদন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ নাজমুল হাছান জানান, বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে মগড়া নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলায় সদ্য রোপনকৃত ২০ হেক্টর আমন জমি পানিতে তলিয়ে যাওয়ার খবর পেয়েছি। আরো বহু জমি তলিয়ে যাওয়ার হুমকির মুখে রয়েছে। তবে আমার লোকজন মাঠে আছে। তারা আসলে ক্ষয়ক্ষতির সঠিক পরিমাণ জানা যাবে। এ বছর উপজেলায় ১০ হাজার ৫শ হেক্টর জমিতে আমন রোপন করা হয়। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এ বছর আমনের বাম্পার ফলন হবে।