ধরলার পানি বাড়ায় লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রামে ফের বন্যা

আপডেটঃ ২:০১ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২০

সি এন এ প্রতিবেদক: টানা বৃষ্টি ও উজানের ঢল অব্যাহত থাকায় চতুর্থ দফায় বন্যার কবলে পড়েছে লালমনিরহাট ও কুড়িগ্রামের নদী অঞ্চলের মানুষ। তলিয়ে গেছে রোপা আমন ও সবজির ক্ষেত। অনেকেই বাড়িঘর ছেড়ে গবাদি পশু নিয়ে আশ্রয় নিচ্ছেন উঁচু স্থানে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের তথ্যমতে, বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে ধরলা নদীর পানি লালমনিরহাটে বিপদসীমার ২২ সেন্টিমিটার ও কুড়িগ্রামে ৩৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপদসীমার নিচে রয়েছে।
লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউপির চর ফলিমারী গ্রামের নবির হোসেন বলেন, বন্যাগুলোর ধকল এখনো কাটিয়ে উঠতে পারেননি তারা। এরমধ্যেই চতুর্থ দফা বন্যা পরিস্থিতিতে আবারো বাড়িঘর ছেড়ে সরকারি রাস্তা ও বাঁধের ওপর আশ্রয় নিতে হচ্ছে।
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখানা ইউপির সারডোব গ্রামের তাহের আলী বলেন, বাড়িতে কোমর সমান পানি উঠেছে। অনেকেই বাড়িঘর ছেড়ে চলে গেছেন সরকারি রাস্তায়। আমরা কোনো রকমে খাটের ওপর আছি।
লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বলেন, টানা বৃষ্টি আর উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি আসাও অব্যাহত রয়েছে। চতুর্থ দফায় বন্যা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে।