বাড়িতে হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার, জানুন মারাত্মক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

আপডেটঃ ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ১৩, ২০২০

লাইফস্টাইল ডেস্ক :করোনাভাইরাস আবহে বেশিরভাগ মানুষ বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘরেই সময় কাটাচ্ছেন। পার্লার সেলুন খুললেও বেশিরভাগ মানুষই ঘরেই বিভিন্ন কাজ সমাধানের চেষ্টা করছেন। রূপচর্চার বেশিরভাগ কাজই ঘরে করার চেষ্টা করছেন সবাই। হাত-পায়ের লোম দূর করার জন্য ঘরেই ক্রিম ব্যবহার করছেন অনেকে। তবে এই বিষয়ে সতর্ক না হলে মারাত্মক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে। চলুন বিস্তারিত জেনে নিই-

বাড়িতে দু’টি উপায়ে হাতে-পায়ের লোম দূর করা যেতে পারে। এক, রেজার ব্যবহার করা। দুই, হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার করা। রেজার ব্যবহার করলে খুব তাড়াতাড়ি হাত-পায়ের লোম ফিরে আসে। তাই বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার করার তাগিদ লক্ষ্য করা যায়।

হেয়ার রিমুভাল ক্রিমে এক ধরনের রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। যাতে হাত ও পায়ের লোম সহজেই গোড়া থেকে বেরিয়ে আসে। একথা হয়তো অনেকেরই জানা। যেটা না জানা থাকতে পারে তা হল এই রাসায়নিকে ক্যালসিয়াম হাইড্রক্সাইড এবং পটাশিয়াম হাইড্রক্সাইড থাকে যা ভীষণভাবে ত্বকের ক্ষতি করে। বিশেষ করে স্পর্শকাতর ত্বকের ক্ষেত্রে। হেয়ার রিমুভাল ক্রিম বেশিদিন ব্যবহার করলে ত্বকের রং কালো হয়ে যেতে পারে। র‌্যাশও হতে পারে।

সাধারণত বেশিরভাগ হেয়ার রিমুভাল ক্রিমে পিএইচ লেভেল বেশি থাকে। যা মানবদেহের ত্বকের ক্ষেত্রে খুবই ক্ষতিকর। এতে ত্বক ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। ফলে কোনো হেয়ার রিমুভাল ক্রিম ব্যবহার করার আগে প্যাচ টেস্ট করে নেওয়া প্রয়োজন।

বেশিরভাগ হেয়ার রিমুভাল ক্রিমে যে রাসায়নিক থাকে। তাতে যেমন গোড়া থেকে হাত ও পায়ের লোম তুলে আনার ক্ষমতা থাকে, তেমনই ত্বক পুড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা থাকে। সময়ের হিসেব না রাখতে পারলে ফার্স্ট ডিগ্রি বার্ন তো বটেই সেকেন্ড ডিগ্রি বার্ন পর্যন্ত হতে পারে।