মদনে ৩ সন্তানের জননীকে ধর্ষণ, থানায় মামলা

আপডেটঃ ৬:০২ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৮, ২০২০

মদন (নেত্রকোণা) সংবাদদাতাঃ নেত্রকোণার মদনের পল্লীতে ৩ সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে সোমবার রাতে মদন থানায় একটি মামলা দায়ের করেছে ধর্ষিতা নিজে। মঙ্গলবার ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছে মদন থানার পুলিশ।

জানা যায়, উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের রুদ্রশ্রী গ্রামের আনিছ মিয়া বাড়িতে না থাকায় তার স্ত্রী ৩ সন্তানের জননী শাহনাজ আক্তার (৩৫) প্রতিদিনের মতো রবিবার রাতে নিজ ঘরে একা ঘুমিয়ে থাকেন। এ সুযোগে গভীর রাতে একই গ্রামের মৃত মুজিবুর রহমানের ছেলে ২ সন্তানের জনক কামরুল (৪২) সুকৌশলে তার ঘরের দরজা খুলে প্রবেশ করে ঘুমন্ত অবস্থায় তাকে ধর্ষণ করে। এ সময় তার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে ধর্ষক পালিয়ে যায়। এ ব্যাপারে সোমবার রাতে ধর্ষিতা বাদি হয়ে ধর্ষক কামরলকে আসামি করে মদন থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ মঙ্গলবার ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেছেন।

সংশ্লিষ্ট ইউপি সদস্য হেপেন মিয়া জানান, কামরুল দীর্ঘদিন ধরে শাহনাজের বাড়িতে থাকেন। গতকাল ধর্ষণের যে খবর শুনেছি তা রহস্যজনক।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই মমতাজ উদ্দিন জানান, ধর্ষিতা নিজে বাদী হয়ে ধর্ষক কামরুল কে আসামি করে সোমবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেছে। ধর্ষিতাকে ডাক্তারী পরিক্ষার জন্য মঙ্গলবার নেত্রকোণা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলাটি তদন্তাধীন আছে।