ভারতে ১৮ কোটি মানুষের দেহে অ্যান্টিবডি থাকতে পারে: গবেষণা

আপডেটঃ ৪:০১ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৪, ২০২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের প্রায় ১৮ কোটি মানুষের দেহে এরইমধ্যে নভেল করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে থাকতে পারে। দেশটির একটি ল্যাবের অ্যান্টিবডি টেস্টের প্রকাশিত ফলাফলে এমন ধারণা উঠে এসেছে। ল্যাবটির পক্ষ থেকে ভারতের বিভিন্ন স্থান থেকে ২০ দিন পরীক্ষা করা হয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়াটাইমস এখবর জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অনেক সংক্রমিত বড় ধরনের লক্ষণ বা উপসর্গ ছাড়াই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অন্তত নিজেদের সংগৃহীত নমুনায় এমনটি দেখা গেছে।

ফলাফল টুইটারে তুলে ধরেছেন ভারতের চেইন ল্যাবরেটরি থাইরোকেয়ার-এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরোকিয়াস্বামী ভেলুমানি। প্রতিবেদনে দেখা গেছে, যাদের পরীক্ষা করা হয়েছে তাদের প্রায় ১৫ শতাংশের অ্যান্টিবডি রয়েছে। ৯০ শতাংশ এখনও করোনায় সংক্রমিত হননি। আক্রান্ত হয়েছেন কিন্তু উপসর্গ নেই ও উচ্চমাত্রার অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে ৯ শতাংশের।

ভেলুমানির প্রকাশ করা তথ্যে দেখা গেছে, তারা ৫৩ হাজার মানুষের পরীক্ষা করেছেন। এই পরীক্ষার ভিত্তিতে প্রতিবেদনে ভারতের অন্তত ১৮ কোটি মানুষের দেহে করোনার বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে থাকতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, অ্যান্টিবডি টেস্টে পজিটিভ সংখ্যা বেশি হওয়া ইঙ্গিত দেয় যে, অনেক মানুষ আক্রান্তের উৎস সম্পর্কে না জেনেই সংক্রমিত হয়েছেন। যা সামাজিক সংক্রমণের লক্ষণ।

ড. ভেলুমানি বলেন, অনেকেই বলছেন এই তথ্য খুবই অপ্রতুল সিদ্ধান্তের আসার জন্য। সবারই নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে তথ্য পর্যালোচনায়। আমাদের সংগৃহীত নমুনায় আমরা ১৫ শতাংশ পজিটিভ কেস পেয়েছি।

থাইরোকেয়ার ছাড়াও দিল্লির সেরো-সাভের্ঙর ফলাফলে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, ২৪ জুলাই পর্যন্ত দেশটি আক্রান্তের সংখ্যা মোট ১২ লাখ ৮৭ হাজার ৯৪৫। কোভিড-১৯ সংক্রমণে ভারতে মৃত্যু হয়েছে ৩০ হাজার ৬০১ জনের। সুস্থ হয়েছেন মোট ৮ লাখ ১৭ হাজার ২০৯ জন। ভারতে এখন অ্যাকটিভ কেসের সংখ্যা ৪ লাখ ৪০ হাজার ১৩৫।