রাজিপুরে গভীর রাতে দেবে গেল বাড়ি

আপডেটঃ ৩:৪৬ অপরাহ্ণ | জুলাই ০৪, ২০২০

মোস্তফিজুর রহমান তারা, রৌমারী কুড়িগ্রাম সংবাদদাতা:রাজিবপুরে গভীর রাতে বর্ন্যার পানিতে দেবে গেল একটি বাড়ি। গত শুক্রবার ৩ জুন দিবাগত গভীর রাতে চর রাজিবপুর মাঠপাড়া গ্রামের বিধরা মনোয়ার বেগমের বাড়িটি ঘড়বাড়িসহ সম্পুর্ণ পানিতে দেবে যায়। সরেজমিনে মনোয়ারা বেগম জানান, ছেলে পুত্রবধু নাতি-নাতনিসহ ১১ সদস্যের যৌথ পরিবার এই ভিটায় বসবাস করতেন। একমাত্র ৯ শতক ভিটেমাটি তাদের সম্বল। তারা অন্যের বাড়িতে কাজ কর্ম করে অতি কষ্টে দিনাতিপাত করে থাকে। কিন্ত ওই অ লের প্রভাবশালী ইউপি সদস্য মোঃ নুরউদ্দিন আমার ভিটে লাগোয়া অবৈধ ভাবে জোড় পুর্বক ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন বানিজ্য শুরু করে। ড্রেজার মেশিন বন্ধের জন্য রাজিবপুর উপজেলা নির্বাহি অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও আমলে নেয়নি ওই ইউপি সদস্য। এদিকে কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও পাহাঢ়ি ঢলের ফলে বর্ন্যার পানি ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেতে থাকে। যেহেতু ড্রেজারে বালু উত্তোলনের ফলে গভীর খাদের সৃষ্টি হয়। বানের পানি প্রবেশের ফলে বসত ভিটের নিচ থেকে মাটি সরে যেতে থাকে। যারফলে নিচে ফাকা হওয়ায় বসত ভিটেটি আস্তে করে দেবে যায়। তবে অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যায় ১১ সদস্যের পরিবারটি। এব্যাপারে রাজিবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো বলেন, খবর পেয়ে ঘটনা স্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। উক্ত পরিবারকে সকল প্রকার সরকারী সহায়তা প্রদান করা হবে। রাজিবপুর উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ নবিরুল ইসলাম বলেন, বাড়িটি দেবে যাওয়ার খবর পেয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখেছ্ িক্ষতিগ্রস্থ্য পরিবারকে শান্তনা দিয়ে সকল প্রকার সরকারী সহায়তা প্রদানের আশ^াস দেওয়া হয়েছে। যার মাধ্যমে ক্ষতি সাধিত হয়েছে দ্রুত তাকে ডেকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা হবে।