সিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফটে বাংলাদেশের নতুন দুই মুখ

আপডেটঃ ৩:২৩ অপরাহ্ণ | জুন ২৩, ২০২০

ক্রীড়া প্রতিবেদক :ওয়েস্ট ইন্ডিজের ফ্র্যাঞ্চাইজি ভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (সিপিএল) নিয়মিতভাবে বাংলাদেশি ক্রিকেটার অংশ নিয়ে আসছে। ইতিমধ্যে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের মতো তারকারা সিপিএল মাতিয়েছেন। এবারের আসরের জন্যও প্লেয়ার্স ড্রাফট হয়েছে। নিলাম হবে আগামীকাল ২৪ জুন।

চলতি আসরে মাহমুদউল্লাহ ছাড়াও আরও অনেক টাইগার ক্রিকেটার সিপিএলে খেলার জন্য নাম লিখিয়েছেন। তবে সবচেয়ে বড় দুই চমক নাসুম আহমেদ ও মেহেদী হাসান রানা। দুইজনই এবারের বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে খেলেছেন। তাদের দুজনের ড্রাফটের বিষয়টি দেখভাল করছেন ইমাগো স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট।

প্রথমবারের মতো বাইরের কোনো লিগে খেলতে চাওয়া এই দুই ক্রিকেটারের সিপিএলের নিলামে ভিত্তিমূল্য ধরা হয়েছে ১৫ হাজার ডলার। নিলামের দশম রাউন্ডে তাদের ডাক উঠবে। নিলামে কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি তাদের নিয়ে আগ্রহ দেখালে প্রতি ডাকে পাঁচ হাজার ডলার করে বাড়বে।

মেহেদী রানা ও নাসুম আহমেদ সর্বশেষ বিপিএলে দারুণ বোলিং করে আলোচনায় চলে আসেন। বল হাতে নাসুম খুব বেশি উইকেট না পেলেও আঁটসাট অ নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের জন্য বেশ নাম করেন। ১৩ ম্যাচে ৭.২৬ ইকোনোমিতে নাসুমের শিকার ৬ উইকেট। বিপিএল শেষে জিম্বাবুয়ের সিরিজের জন্যও ডাক পান সিলেটের এই ক্রিকেটার। তবে একাদশে সুযোগ মেলেনি তাঁর।

এদিকে গেলো বিপিএলে মেহেদী রানা ছিলেন দুর্দান্ত ফর্মে। ১০ ম্যাচে শিকার করেছেন ১৮ উইকেট। ইকোনোমি ছিল সাড়ে সাত। তবে বাঁহাতি এই পেসার স্লগ ওভারে ম্যাচ জেতানো বোলিং করে সুনাম অর্জন করেন। এমনকি নিয়মিত ব্রেক থ্রুও এনে দিয়েছেন তিনি।

আসন্ন সিপিএলের আসর আগামী ১৮ আগস্ট থেকে শুরু হওয়ার কথা। আর এর পর্দা নামবে ১০ সেপ্টেম্বর। করোনাভাইরাসের জটিলতার কারণে চলতি সিপিএল বিভিন্ন প্রদেশে না হয়ে কেবল ত্রিনিদাদে আয়োজনের পরিকল্পনা করেছে কর্তৃপক্ষ।