টঙ্গীতে ‘ডিস ব্যবসা’ দখলে নিতে ছাত্রলীগ নেতার কান্ড!

আপডেটঃ ১২:৩৭ অপরাহ্ণ | জুন ০৭, ২০২০

নাঈমুল হাসান,টঙ্গী(গাজীপুর): দীর্ঘ এক যুগ ধরে টঙ্গীর মিলগেইট নিশাত মহল্লায় ক্যাবল অপারেটর (ডিস) ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন মতিন মিয়া। হঠাৎ করেই মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েন মতিন। আর এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মতিন মিয়ার ডিস ব্যবসা দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় এক ছাত্রলীগ নেতা। ওই ডিস ব্যবসায়ীর কাছে প্রথমে চাঁদা দাবি এবং পরবর্তীতে চাঁদা না পেয়ে পুরো
 ব্যবসা দখলে নিতে একের পর এক জুলুম-অত্যাচার শুরু করেন ছাত্রলীগের ওই নেতা। অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতা টঙ্গীর ৫৫ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সানি। এই কাজে ইব্রাহিম সানির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন একই ওয়ার্ডের ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদের ছোট ভাই পারভেজ ওরফে বেচু। এ ঘটনায় টঙ্গী পশ্চিম থানায় ডিস ব্যবসায়ী মতিনের ছোট ভাই সওদাগর হোসেন
 ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিম সানি সহ চারজনের নাম উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, টঙ্গীর পশ্চিম থানাধীন নিশাত মহল্লায়
দীর্ঘদিন ধরে ডিস এর ব্যবসা করে আসছেন মতিন ও তার ছোট ভাই সওদাগর। উক্ত ব্যবসাকে কেন্দ্র করে ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সানি (২৬), তার ছোট ভাই ফিরোজ (২৩), ওয়ার্ড ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদের ছোট ভাই পারভেজ ওরফে বেচু (২৫) এবং দেলু (৩২) বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে ডিস ব্যবসার সাথে জোরপূর্বক অংশীদারিত্বে থাকতে চায়। ব্যবসায় নতুন করে কাউকে অংশীদার নেওয়া হবেনা জানালে ক্ষিপ্ত হয়ে ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিম সানি তাদের কাছে মাসিক চাঁদা দাবি করেন। গত ১৯ মে চাঁদা না পেয়ে সানি ও তার সঙ্গীরা নিশাত মহল্লায় বিভিন্ন স্থানে ডিসের ক্যাবল সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।
বিষয়টি নিয়ে বিবাদীগনের নিকট জানতে চাইলে তারা বলেন, “ডিস ব্যবসায় তাদেরকে অংশীদারিত্বে রাখতে হবে, আর নয়তো নিয়মিত মাসিক চাঁদা দিতে হবে। অন্যথায় ওই এলাকায় ব্যবসা করতে দেওয়া হবে না।
অভিযোগের বিষয়ে জানতে ৫৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম সানির মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিএনপির এক ব্যক্তি এলাকায় ডিস ব্যবসা করেন। আমরাও চেয়েছিলাম এলাকায় ডিস ব্যবসা করতে। এ নিয়ে ঝামেলা হওয়ায় আপাতত বন্ধ আছে কার্যক্রম।
অভিযোগের তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) বিল্লাল হোসেন জানান, ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিম সানির বিরুদ্ধে ডিস ব্যবসা দখলের চেষ্টার একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা সত্যতা পেয়েছি। বিষয়টি স্থানীয় নেতাকর্মীরা নিজেরা বসে মিমাংসা করবেন বলে জানিয়েছেন। এর পরবর্তীতে যদি জোরপূর্বক কেউ ব্যবসা দখলের চেষ্টা করে তাহলে বাদি পক্ষ মামলা করলে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।
টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশের (ওসি) মো. এমদাদুল হক বলেন, ইতোপূর্বে ছাত্রলীগ নেতা ইব্রাহিম সানির বিরুদ্ধে হত্যা, মাদক, মারামারি সহ একাধিক অভিযোগ ও মামলা হয়েছে। বিভিন্ন মামলার ওয়ারেন্টে তাকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছিলো।
সিএনএ/নাহাবি