‘১১টি অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্রের আটটির মেয়াদ ছিল না’

আপডেটঃ ১০:৫৫ পূর্বাহ্ণ | মে ২৯, ২০২০

সি এন এ প্রতিবেদক: রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালের সম্প্রসারিত অংশের ১১টি অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্রের মধ্যে আটটির মেয়াদ ছিল না। এছাড়া হাইড্রেন্ট কে চালাবে, কে কাজ করবে, এসব দায়িত্ব সুনির্দিষ্ট ছিল না বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে আগুন লাগা স্থান ঘুরে দেখা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা জানান। বুধবার রাত সাড়ে নয়টায় মূল হাসপাতাল লাগোয়া করোনা চিকিৎসার আসোলেশন ইউনিটে আগুন লাগে। এতে পাঁচজন রোগী নিহত হন। তারা ওই ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন। তাদের মধ্যে তিনজন করোনা আক্রান্ত ছিলেন বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে। বাকি দুজনের করোনা উপসর্গ ছিল। তবে করোনা হয়েছিল কিনা, তা নিশ্চিত নয়।

মেয়র বলেন, ‘ইউনাইটেড হাসপাতালের সম্প্রসারিত অংশে ফায়ার ফাইটার, ফায়ার ড্রিল এবং ফায়ার-টিম ছিল না। ১১টি অগ্নিনির্বাপণ যন্ত্রের মধ্যে মাত্র তিনটির মেয়াদ ছিল। অন্য আটটি অগ্নিনির্বাপন যন্ত্রের মেয়াদ উত্তীর্ণ। হাইড্রেন্ট কে চালাবে, কে কাজ করবে, কার দায়িত্ব, এগুলো সুনির্দিষ্ট করা ছিল না।’

আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘হাসপাতালে মানুষ ভর্তি হয় আরোগ্য লাভ করার জন্য, এটা অত্যন্ত বেদনাদায়ক যে তারা এখানে অগ্নিদুর্ঘটনায় মারা গেলেন। তিনি সকল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ফায়ার সেফটির ওপর গুরুত্ব দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।’

পরিদর্শনকালে অন্যান্যদের মধ্যে ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোমিনুর রহমান মামুন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তারাসহ ১৮ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন বাবুল উপস্থিত ছিলেন।