বাংলা টিভি জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল রাজিব-কে রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন থেকে বহিষ্কার

আপডেটঃ ১:৩০ অপরাহ্ণ | মে ১৬, ২০২০

সৌদি প্রতিনিধি:সৌদি আরব রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া পশ্চিম অ ল সৌদি আরবের গনতন্ত্র বহির্ভূত কাজ করায় সৌদি আরবের জেদ্দায় কর্মরত বাংলাদেশ স্যাটেলাইট চ্যানেল বাংলা টিভির জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল ইসলাম রাজীবকে সংগঠন থেকে এক বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে। জানা যায়, গত ১০ই মে রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অফ ইলেকট্রনিক মিডিয়া পি মা ল সৌদিআরবে সকল সদস্যদের নিয়ে একটি মাল্টি মিডিয়া জুম এপপ এর মাধ্যমে জরুরী ভিত্তিতে মিটিং আহ্বান করে সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক, সন্ধা ৭টা ৩০ মিনিটে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত সকল সদস্যদের মতামত গ্রহণ ও সাইফুল রাজীবের বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ উত্থাপন করা হয়। সভায় সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি বাংলাভিশন প্রতিনিধি সোহেল রানাকে প্রধান করে পাচঁ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত সভা চলাকালীন বাংলা টিভির জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল রাজীব অশালীন আচরণ করে সভা থেকে বেরিয়ে যায়। গত ১১ই মে তদন্ত কমিটি বাংলা টিভির জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল রাজীব এর বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় সংগঠনের নীতিমালার ২ এর ৩ ও ৬ এর খ ধারা মতে ১০ই মে ২০২০ থেকে রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া পশ্চিম অ লে প্রাথমিক সদস্য পদ সহ সকল কার্যক্রম থেকে এক বৎসর এর জন্য অভ্যাহতি দেওয়া হয়েছে । সংগঠনের প্যাডে সভাপতি এম ওয়াই আলাউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদ সেলিম এর যৌথ স্বাক্ষরে বহিষ্কার আদেশ টি উক্ত সংগঠন এর প্রাক্তন সহ প্রচার সম্পাদক সাইফুল ইসলাম রাজিবর নামে ইসু করা হয়, এবং সেই সাথে এর অনুলিপি ১. বাংলাদেশ দূতাবাস রিয়াদ, ২. জেদ্দা কনসুলেট জেনারেল, ৩. বাংলা টিভি কর্তৃপক্ষ, ৪. সৌদি আরবের সকল সামাজিক রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দের নিকট ও বাংলাদেশী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমুহে প্রতি অনুলিপির কপি ফেরন করা হয়, যা উল্লেখ উক্ত বহিষ্কার বা অভ্যাহতি পত্রের নির্মাংশে। অভিযোগ পত্রে বলা হয় সাইফুল ইসলাম রাজীব বিভিন্ন সময়ে সৌদি আরবের রাজনৈতিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলো র সাথে শিষ্টাচার বহির্ভূত আচরণ ও সাধারণ প্রবাসীদের সাথে প্রতারণা মূলক নানান হুমকি দিয়ে আসছে যা সুনির্দিষ্ট অভিযোগ রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয় বহিষ্কার আদেশে, এবং সে সাথে ১৫ আগস্টের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহদাৎ বার্ষিকীর দিন রাতে লাইভে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান প্রচার করে। উক্ত বিষয়টি নিয়ে হজব্রত মাননীয় ডেপুটি স্পিকার এডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া, মাননীয় মন্ত্রী স.ম রেজাউল করিম, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মাহবুবুর রহমান, জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনসুলেটের সাবেক কনসাল জেনারেল এফ এম বোরহানউদ্দিন, ও আওয়ামী লীগের সব সংগঠনের পক্ষ থেকে রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অফ ইলেকট্রনিক মিডিয়া পি মা ল সৌদিআরব এর সভাপতি এম ওয়াই আলাউদ্দিন ও সিনিয়র সহ-সভাপতি সোহেল রানাকে বাংলা টিভির জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল রাজীব এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেন। এছাড়াও, সেই তার অনলাইন পোর্টাল প্রবাসের সাতকাহন, প্রবাস কথা, বাংলা টিভি ফেইজ ও একাধিক গ্রুপে ফেইজবুক লাইভের মাধ্যমে সৌদি আরব বাংলাদেশ সরকারের বিরুদ্ধে উত্তেজনাকর ও বিভ্রান্তি মূলক তথ্য প্রধান করে আসছে যা সংগঠনের নীতিমালার সাথে সাংঘর্ষিক। এখানে আরও উল্যেখ করা হয় সৌদি আরবের বাংলাদেশ কালচারাল ফোরাম, আওয়ামী লীগের সংগঠন সমুহ, জেদ্দা বিজয় বাংলা ব্যান্ডের পরিচালক জেসমিন আরা পুতুল এর পক্ষ থেকে সাইফুল ইসলাম রাজিব এর বিরুদ্ধে নানান আপত্তিকর অভিযোগ করেন সংগঠনের কাছে। সংগঠন উক্ত অভিযোগ গুলো পাওয়ার পর বাংলা টিভির জেদ্দা প্রতিনিধি সাইফুল রাজীব-কে মুখিখ ভাবে বরন বার সতর্ক করে। এর পরেও তার কোন পরিবর্তন না আসায় গত ৬ই মে লকডাউন এর মধ্যে সংগঠন এর সকল সদস্য দের নিয়ে টেলিকনপারেন্সে মাধ্যমে সংগঠন এর প্রত্যেক সদস্য সাইফুল রাজিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে শাস্তি দাবি তুলে। এই ছাড়াও উল্লেখ থাকে অত্যান্ত সুমাম ধন্য অনলাইন পত্রিকা সৌদি আরব থেকে প্রচারিত সৌদি আরবের প্রথম ভিডিও নিউজ পোর্টাল বিডি সংবাদ একাত্তর এর প্রকাশক ও সম্পাদক বিশিষ্ট সংগঠক রাজনৈতিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব রফিক চৌধুরী ও জাতীয় স্যাটেলাইট চ্যানেল আই এর সৌদিআরবে প্রতিনিধি ও রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া পশ্চিম অ লের এর সভাপতি বিশিষ্ট মিডিয়া ব্যাক্তি এম ওয়াই আলাউদ্দিন এর বিরুদ্ধে, সাইফুল রাজিব তার ফেসবুকে ও বাংলা টিভি ফেইজ থেকে কটাক্ষ করে ছবি দিয়ে পোস্ট করে মানহানির অপরাধ করেছে যা একজন সাংবাদিক হিসাবে কখনো সোভা পায় না। এই ধরনের তার শিষ্টাচার বহির্ভূত কর্মকান্ডের কারণে সসংগঠনের উপর চাপ আসছিল যার পরিপ্রেক্ষিতে তার এই বহিষ্কার আদেশ সমউপযোগী উল্লেখ করে সৌদি আরবের সামাজিক রাজনৈতিক সাংস্কৃতিক ও অনেক প্রবাসীরা স্বাগত জানিয়েছেন এবং রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন অব ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া সৌদি আরব পশ্চিম অ লের নেতৃবৃন্দের ধন্যবাদ জানান। এদিকে, তার অব্যাহতির বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে সাইফুল ইসলাম রাজীব এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, উক্ত সকল অভিযোগ বৃত্তিহীন বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত উক্ত অভিযোগ গুলো একটিই প্রমান করতে পারবেনা। তিনি বলেন কে আমাকে রাখল কে বহিস্কার করল ওটা আমার দেখার বিষয় না, আমার যে দায়িত্ব সেটি পালন করতে আমার কোনো সংগঠন লাগবে না, আমি অন্যায়ের সাথে আগে কোনদিন আপোষ করিনি ভবিষ্যতেও করব না, আর অন্যায় যে করবে সে আমার বন্ধু হোক আর বাবা হোক একবিন্দু ছাড় পাবে না আমার কাছ থেকে।