আইপিএল না হলে খেলোয়াড়দের বেতন কাটবে বিসিসিআই

আপডেটঃ ৪:৫২ অপরাহ্ণ | মে ১৫, ২০২০

ক্রীড়া ডেস্ক : বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত। করোনার কারণে এ বছর আইপিএল হবে কিনা তা নিয়েও রয়েছে অনিশ্চয়তায়। যদি এ বছর আইপিএল না হয় তাহলে ৪০০০ কোটি রুপি ক্ষতি হবে। যদি এরকম কিছু হয় তাহলে বিসিসিআই ভারতীয় ক্রিকেটারদের বেতন কাটবে। এরকমই ইঙ্গিত দিয়েছেন বিসিসিআইয়ের চেয়ারম্যান সৌরভ গাঙ্গুলি।

এ বছরের ২৯ মার্চ আইপিএলের ১৩তম আসরের খেলা শুরুর কথা ছিল। কিন্তু করোনায় দীর্ঘদিন ধরেই ভারত লক ডাউনে। মাঠে খেলা চালু রাখার প্রশ্নেই উঠে না। এজন্য অনির্দিষ্টকালের জন্য আইপিএল বন্ধ রেখেছে ভারত। আইপিএলের জন্য বরাবরই বিশাল অঙ্কের বাজেট থাকে বিসিসিআইয়ের। দ্বিগুণের বেশি লাভ হওয়ায় বিসিসিআই বরাবরই এ টুর্নামেন্টে বিনিয়োগ করে আসে। যেমন, টিভি রাইটস, গ্রাউন্ড রাইটস, ফ্র্যাঞ্চাইজি রাইটস। এবারের আসরের জন্যও বিনিয়োগ করেছিল। কিন্তু বল মাঠে না গড়ালে বিশাল অঙ্কের ক্ষতি হবে।

গাঙ্গুলিও বললেন,‘এবার যদি আইপিএল না হয় তাহলে আমরা খেলোয়াড়দের বেতন কাটতে বাধ্য হবো। আমরা বিষয়গুলো পর্যবেক্ষণে রাখছি।’ বলা হচ্ছিল আইপিএল আয়োজন করা হবে ক্লোজ ডোরে। কিন্তু দর্শকশূণ্য স্টেডিয়ামে ম্যাচ আয়োজন করলে আইপিএলের মজা থাকবে না বলে মন্তব্য করেছেন গাঙ্গুলি। তাঁর ভাষ্য,‘যদি এরকম কিছু হয় আইপিএলের উত্তেজনা থাকবে না। আমি এরকম একটি ম্যাচ খেলেছিলাম। ১৯৯৯ সালে ইডেন গার্ডেনে পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি ম্যাচে কোনও দর্শক ঢুকতে দেওয়া হয়নি। এশিয়ান টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ম্যাচ ছিল। ওই ম্যাচে প্রাণ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না।’

‘আমরা যদি সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করে কিছু দর্শক প্রবেশ করাতে পারি তাহলেও হবে। কর্মকর্তাদের সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীতে কঠোর হতে হবে। আমি বুঝতে পারছি সিদ্ধান্তটা কঠিন। তবে আইপিএলের জন্য এটা আমাদেরকে করতে হবে।’- যোগ করেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক।