করোনা সচেতনতায় গম্ভীরা পুঁথি গান..

আপডেটঃ ১২:৫১ অপরাহ্ণ | মে ০১, ২০২০

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সংবাদদাতা : প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে চাঁপাইনবাবগঞ্জ অঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী গম্ভীরা ও পুঁথি গানে সচেতন করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

জনপ্রিয় নানা-নাতির গান আর অভিনয়ের গম্ভীরা ও পুঁথি গান রেকর্ড করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও কেবল অপারেটরদের স্থানীয় চ্যানেলে প্রচারের মাধ্যমে তুলে ধরা হচ্ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস মোকাবেলার নানান দিক।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসার পর সাড়াও মিলেছে ব্যাপক। অনেকেই সেসব গম্ভীরা ও পুঁথি গানের ভিডিও নিজ টাইমলাইনে শেয়ার করছেন। কেউ কেউ ডাউনলোড করে পরিবার ও প্রতিবেশীদের শুনিয়ে করোনা সচেতনতায় ভূমিকা রাখছেন।

জেলার একমাত্র কমিউনিটি রেডিও ‘রেডিও মহানন্দা ৯৮.৮ এফএম’ এ ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে করোনা নিয়ে সচেতনতামূলক গম্ভীরা গান। অনেকেই সেটি মোবাইলে রেকর্ড করেও বাজাচ্ছে।

রেডিও মহানন্দা’র টেকনিক্যাল অফিসার রেজাউল করিম টুটুল জানান, প্রয়াস ফোক থিয়েটারের তৈরি একটি গম্ভীরা এবং দুটি নিজের ও একটি অন্য রেডিও’র পুঁথি গান প্রচার করা হচ্ছে এখন। এ ছাড়াও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকেও ভিডিও করে তা প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। অনেক লাইক, কমেন্ট, শেয়ারও হচ্ছে।

তিনি আরো জানান, সর্বমোট ৪৮টি সচেতনতামূলক প্রমো বাজানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে চাঁপাই গম্ভীরা দলের নানা ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মাহবুবুল আলম বলেন, ‘সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই জনসাধারণকে সচেতন করতেই আমরা এসব করছি। এর আগেও আমরা স্যানিটেশন, বাল্য বিয়ে, এইডস নিয়ে অনেক অনেক গম্ভীরা করেছি। এতে কাজও হয়েছে। যেহেতু করোনাভাইরাসের প্রভাবে জনসমাগম করা যাবে না, তাই গম্ভীরা রেকর্ড করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। এতে একটু সময় লাগলেও মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধি ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কাজ করবে বলে আমরা আশাবাদী।’

মাহবুবুল আলম আরো বলেন, ‘গম্ভীরার পাশাপাশি পুঁথি গানের মাধ্যমেও জনগণকে করোনা বিষয়ে সচেতনতারও উদ্যোগ নিয়েছি আমরা।’

জেলা কালচারাল অফিসার ফারুকুর রহমান ফয়সাল বলেন, ‘স্বাভাবিকভাবেই বল প্রয়োগ করে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও মানুষকে ঘরে রাখার চাইতে শিল্পের মাধ্যমে সচেতন করা খুবই সহজ ও কার্যকর উপায়। তাই গম্ভীরা ও পুঁথি গান করোনা মোকাবেলায় করণীয় নিয়ে জনসাধারণের সচেতনতা বাড়াবে।’

এ ছাড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত ও জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে জেলা শিল্পকলা একাডেমির সহযোগিতায় ৪টি দলের গম্ভীরা রেকর্ড করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে ।

দলগুলো হলো- চাঁপাই গম্ভীরা দল, নবাব গম্ভীরা দল, চাঁপাই নকশী গম্ভীরা দল ও লোক গম্ভীরা দল।