ফিট থাকার রহস্য জানালেন তারা

আপডেটঃ ১০:১০ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ১২, ২০২০

বিনোদন ডেস্ক :একজন অভিনেত্রীর অভিনয় গুণ যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তেমনি শরীরি সৌন্দর্যও বিশেষ আবেদন রাখে। কিন্তু গল্প বা চরিত্রের প্রয়োজনে রাত-দিন শুটিং করতে হয় তাদের। কখনো কল টাইম রাত ৩টায়, আবার কখনো ভোর ৫টায়। এত অনিয়মের মধ্যে কীভাবে ফিট ও লাবণ্যময় চেহারা ধরে রাখেন তারা?

এ বিষয়ে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমে কথা বলেছেন টলিউড অভিনেত্রী নুসরাত জাহান, রুক্মিনি মৈত্র, পাওলি দাম, প্রিয়াঙ্কা সরকার। জানিয়েছেন তাদের গোপন রহস্য।

অভিনেত্রী নুসরাত জাহান সাংসদ হওয়ার পর তার ব্যস্ততা অন্য মাত্রায় পৌঁছেছে। ভ্রমণ করার সময় নিজের ফিটনেস টুল বহণ করেন নুসরাত। টিআরএক্স ব্যান্ড তার লাগেজেই থাকে। কলকাতায় থাকলে নিয়ম করে জিমে ঘাম ঝরান। ট্রেডমিলে দৌড়ানো সম্ভব নয়, এজন্য কঠিন ওয়েট ট্রেনিংয়েই ভরসা রাখেন এই নায়িকা।

মডেলিং থেকে অভিনয়ে নাম লেখান টলিউড অভিনেত্রী রুক্মিনি মৈত্র। এখনো জিমমুখো হননি তিনি। রুক্মিনি মৈত্র বলেন—‘আমার কাছে খাবার মুড লিফটারের মতো। আসলে আমার মেটাবলিজম ভালো, তাই খুব একটা চিন্তা করতে হয় না। তবে মা বলেন, ত্রিশ পেরুলে নাকি চিন্তা করতেই হবে।’

মোটিভেশনে বেশ গুরুত্ব দিয়েছেন পাওলি দাম। তার ভাষায়—‘প্রত্যেক দিন সকালে উঠে জিমে যাওয়ার জন্যও কিন্তু মোটিভেশন লাগে। কাজের প্রতি ভালোবাসাই আমাকে সবচেয়ে বেশি মোটিভেট করে। আমাকে ফিট থাকতে হবে, নিজেকে মেইনটেইন করতেই হবে—এই তাগিদ থেকেই সবকিছু হয়।’ নিজেকে সবসময় ব্যস্ত রাখেন পাওলি। নিজেকে ব্যস্ত রাখাটাও খুব জরুরি। যখন অবসর থাকেন তখন বিভিন্ন ওয়েব পোর্টালে সারাক্ষণই কিছু না কিছু দেখতে থাকেন এই অভিনেত্রী।

অবসরে বিশেষ কোনো রান্না কিংবা আয়নার সামনে নাচলেও মুড ভালো হয়ে যায় প্রিয়াঙ্কা সরকারের। মন ভালো করতে আয়নার সামনে সময় কাটানোর কথা বললেন প্রিয়াঙ্কা। পাওলির মতোই পুরোদস্তুর জিমপ্রেমী প্রিয়াঙ্কা। তাই রোজ ওয়ার্কআউট সেশনে কোনো ফাঁকি নেই তার। সেই সঙ্গে গরমকালে চলে সাঁতার।

সব মিলিয়ে শরীর চর্চার পাশাপাশি মানসিকভাবে ভালো থাকার উপরে জোর দিয়েছেন অভিনেত্রীরা। যা তাদেরকে ফিট ও লাবণ্য ধরে রাখতে সহায়তা করছে।