টঙ্গীতে ৫ বছরের শিশুকন্যা ধর্ষণ ॥ থানায় অভিযোগ

আপডেটঃ ১১:১৬ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০

সি এন এ নিউজ, টঙ্গী:টঙ্গীর মরকুন পূর্বপাড়ার গুদারাঘাট এলাকায় ৫ বছরের এক শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার পর থেকে ধর্ষণকারী অভিযুক্ত মো. জহির (১৫) পলাতক রয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও শিশুটির মা জানায়, ধর্ষণের শিকার শিশুটি তার বাবা-মায়ের সাথে ওই এলাকায় আক্কাস আলীর বাড়িতে ভাড়া বাসায় থাকে। মা বিলাসী বেগম স্থানীয় একটি ওয়াশিং কারখানায় কাজ করে এবং বাবা মানিক মিয়া অটোরিক্সা চালায়। প্রতিদিনের ন্যায় গতকাল শিশুটিকে বাসায় রেখে বাবা-মা উভয়ে কাজে চলে যায়। এ সুযোগে বিকেল ৪ টার দিকে পাশের বাড়ির মালিক বাচ্চু মিয়ার বখাটে ছেলে জহির শিশুকে একা পেয়ে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে তার ঘরে নিয়ে যায়। পরে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। খবর পেয়ে টঙ্গী থানা পুলিশ শিশুটিকে উদ্ধার করে টঙ্গী শহীদ আহসান উল্লাহ্ মাষ্টার জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য গাজীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
এলাকাবাসী জানায়, ধর্ষক জহির খুবই খারাপ চরিত্রের লোক। সে বিভিন্ন সময়ে বাড়ির ভাড়াটিয়া মহিলাদেরও উত্যক্ত করে থাকে।
যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী পূর্ব থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সুব্রত কুমার পোদ্দার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। শীঘ্রই অভিযুক্তকে আইনের আওতায় আনার প্রক্রিয়া চলছে।