বিয়ে হলো মূক ও বধির বর-কনের

আপডেটঃ ১০:২০ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০

সি এন এ নিউজ,ডেস্ক:বাজনা বাজিয়ে বর সেজে বিয়ে করতে হাজির বর। নিয়ম মেনেই বিয়েটাও হয়। এতে অভিনবত্বের কিছু নেই।

কিন্তু এই বিয়েই অভিনব হয়ে ওঠে যখন বর-কনে দুজনেই মূক ও বধির।

কিন্তু গত রোববার এমনই এক অভিনব বিয়ে ঘটে গেল প্রতীক দাস এবং বর্ণালী কাজলির জীবনে। কারণ দুজনেই মূক ও বধির। ভালোবাসার সপ্তাহ শেষে এক মানবিক অনুষ্ঠানের সাক্ষী রইল কলকাতার হলদিয়া এলাকা।

মূক ও বধির হলেও অগ্নিকে সাক্ষী রেখে সাত পাকে বাঁধা পড়লেন যুগল। শুভদৃষ্টির পর লাজুক চোখে মুচকি হেসে নীরব প্রতিশ্রুতি দিয়ে বুঝালেন পাশে থাকবেন আজীবন।

দুর্গাচক এলাকার খঞ্জনচকের বাসিন্দা প্রতীক (২৪)। প্রতীকের প্রাথমিক পড়াশোনা হলদিয়ার মূক ও বধির স্কুল ‘শ্রুতি’তে। বর্ণালীও (২১) ‘শ্রুতি’-র ছাত্রী।

স্কুল কর্তৃপক্ষের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে স্কুল অভিভাবকদের ডাকা হলে স্কুলেই পরিচয় হয় প্রতীক এবং বর্ণালীর মায়ের।

সেখানে ১৮ বছর আগে দুজনেই কথা দেন প্রাপ্তবয়ষ্ক হলে একে অপরের বিয়ে দেবেন। সেই ১৮ বছর আগের কথাই রেখেছেন দুজন।

অগ্নিসাক্ষী রেখে চার হাত এক করেন। ব্রাহ্মণ পুরোহিত উচ্চারণ করেন হৃদয়-বন্ধনের মন্ত্র। আকার-ইঙ্গিতে সেই মন্ত্রের ব্যাখ্যা বুঝিয়ে দেওয়া হয় নবদম্পতিকে। হিন্দুশাস্ত্র অনুযায়ী, যাবতীয় আচার-নিষ্ঠা মেনেই সম্পন্ন হয় বিয়ের অনুষ্ঠান।