মোহনগঞ্জে মসজিদের সামনে মসজিদ নির্মাণ করে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগ

আপডেটঃ ১০:০৮ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৯, ২০২০

মোনায়েম খান, সি এন এ নিউজ, নেত্রকোণা : জেলার মোহনগঞ্জ উপজেলার সমাজ সহিলদেও ইউনিয়নের সহিলদেও গ্রামের দুই শত প াশ বছরের পুরনো সেন্টার মসজিদে তালা লাগিয়ে গ্রামের মুসল্লিদের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগ উঠেছে। সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, সহিলদেও গ্রামের সেন্টার মসজিদ নির্মাণের জন্য সরকারি ভাবে অর্থ বরাদ্ধ হয় । তাহা সমাজ সহিলদেও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম সোহেল নিজ ক্ষমতার বলে গ্রামের লাটিয়াল বাহিনী নিয়ে গ্রামের পুরাতন মসজিদে টাকা ব্যায় না করে মসজিদের সামনে আর একটি নতুন মসজিদ নির্মাণ করে গ্রামের মুসল্লিদের মাঝে দুই ভাগে বিভক্ত করে দিয়েছে । পুরাতন মসজিদের মুসল্লিদের উপর ভয় বৃতি ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে ও তাদের উপর একের পর এক নানা ভাবে নির্যাতন চালাচ্ছে। যে মসজিদে গ্রামের মানুষ পাচঁ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতেন সেই মসজিদে এখন তালা ঝুলছে । গ্রামের এক ভাগের মুসল্লিগণ জানান আমরা পুরাতন মসজিদে নামাজ আদায় করে আসছিলাম গত ১-২-২০ শুক্রবার থেকে চেয়ারম্যানের লোকজন মোহন মিয়া ,শাহজাহান মিয়া, সেলিম মিয়া সহ একটি সংঘ বদ্ধ দল পুরনো মসজিদে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বলেছে যদি কেউ এই পুরাতন মসজিদে নামাজ পড়ে । তাহলে তাদের হাড় গুড় ভেঙ্গে দেওয়া হবে বলে আমাদেরকে হুমকি দমকি ও মামলার ভয় দেখাচ্ছে। যে কারনে আমারা অন্য এলাকায় গিয়ে শুক্রবারের নামাজ আদায় করেছি । গ্রামের মানুষ আরও জানান ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের একগোয়েমী ভাবে নতুন মসজিদ নির্মাণ করে এই গ্রামের মানুষের মাঝে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দিয়েছেন । এই নিয়ে সমাজ সহিলদেও ইউনিয়ন বাসীর মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে যে কোন সময়ে বড় ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে। ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম এর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে জানা যায়, জেলা পরিষদ ও টিয়ার খাবিখা দিয়ে ও সকলের টাকায় নতুন মসজিদ নির্মাণ করা হয়েছে এবং সেই পুরনো মসজিদ অন্য কাজে ব্যবহার করা হবে। মসজিদ ও মসজিদে নামাজ পড়ার বিষয় নিয়ে মোহগঞ্জ বড় মসজিদের ইমাম মুফতি আমির আহম্মদ ও মাওলানা মোফাছের দেওয়ান মাছুম ই্য়ার চৌধুরীর সাথে যোগা যোগ করলে দুজনেই বলেন, মসজিদ হল আল্লাহর ঘর, তা কালি রাখা যাবে না এখানে পাচঁ ওয়াক্ত নামাজ সহ জুম্মার নামাজ আদায় করতে হবে। না হলে এলাকার মানুষ গুনাহগার হয়ে যাবে এবং মসজিদ নিয়ে কোন প্রকার ডাঙ্গা হাঙ্গামা করা যাবে না ও মসজিদের পবিত্রতা রক্ষা করতে হবে ।