নেত্রকোনায় স্বামী থাকার পরও ১৪ বছর ধরে বিধবা ভাতা পায় হোসনে আরা

আপডেটঃ ৯:৫২ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ১৪, ২০২০

মোনায়েম খান, সি এন এ নিউজ ,নেত্রকোণা : ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বার গণ  অসহায় দারিদ্র মানুষের জন্য কাজ করবে ।এরাই যদি স্বামী আছে যেনে স্ত্রীকে ৫,হাজার ও ১০,হাজার টাকার বিনিময়ে বিধাব কার্ড দেন । তাহলে তাদের কাছে কি আশা করা যায়।এমন এক ঘটনা ঘঠেছে নেত্রকোণা জেলার সদর উপজেলার ঠাকুরাকোণা ইউনিয়নের ২নং ওয়াডের আসদাটী গ্রামের রঙ্গু মিয়ার স্ত্রী হোসনে আরা, জীবিত স্বামী রেখে বিগত ২০০৬ সাল থেকে ১৪ বছর যাবৎ বিধাব ভাতা উত্তোলন করে আসছেন। যাহার হিসাব নং ৫৭,বহি নং ৬০০,জন্ম তারিখ ৫-৩-৭৭ আইডি নং ৭২১৭৪৯৪১৯০০১৬,সরজমিনে গিয়ে দেখা যায় হোসনে আরার স্বামী মোঃ রঙ্গু মিয়া জীবিত আছেন। স্ত্রী হোসনে আরার সাথে কথা বলে জানা যায় গ্রামের কয়েক জনের সহযোগীতায় টাকার বিনিময়ে সাবেক ইউপি সদস্য আইয়্যুব আলী আমাকে বিধাব কার্ডটি দিয়েছিলেন এই থেকে আমি টাকা উত্তোলন করে আসছি । এই নিয়ে ইউনিয়নের ২নং ওয়াডের বর্তমান ইউপি সদস্য শরিফ উদ্দিন মিন্টু বলেন বিষয়টি আমি আগে থেকে জানতাম। এই বিধবা কার্ডটি সাবেক চেয়াম্যান হাজী সদর আলী দিয়েছিলেন । ঠাকুরাকোণা ইউনিয়ন পরিষদের চার বারের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুর রাজ্জাক বলেন সাবেক চেয়ারম্যান হাজী সদর আলীর সময়ে এই কার্ডটি দেওয়া হয়েছিল এই বিষয়ে আমি কিছুই জানি না । এই নিয়ে এলাকাবাসী কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা যায় । যারা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেম্বার হন তারা যে কোন কার্ড টাকার বিনিময়ে ছাড়া দেন না ও যত অনিয়ম তাদের ধারায় হয়।