পিতা হত্যার বিচার চেয়ে মায়ের সঙ্গে মানববন্ধনে ৩ শিশু

আপডেটঃ ৫:২৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১০, ২০২০

ফরিদপুর সংবাদদাতা : ফরিদপুর সদর উপজেলা মাচ্চর ইউনিয়নের দয়ারামপুর গ্রামের মৃত ইমান আলীর ছেলে (৩৫) রাজ মিস্ত্রি আতিয়ার হত্যার সঙ্গে জড়িত আসামিদের ফাসিঁর  দাবিতে শুক্রবার সকালে দয়ারামপুর গ্রামে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করছে এলাকাবাসী।
এ সময় নিহত আতিয়ারের ৯ বছরের ছেলে লিংকন, ভাই মো. লুৎফর শেখ, আসোকের ফরিদপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতি মো. হাবিবুর রহমান, স্থানীয় মো. মাসুম খান, মো. সোহেল শেখ বক্তব্য রাখেন।
মানববন্ধনে কান্না জড়িত কন্ঠে নিহত আতিয়ারের স্ত্রী মিনা বেগম বলেন, আসামিরা মাদকের ব্যবসা করে, আমার স্বামী পুলিশকে ওদের নাম বলে দেয়ার ওরা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে গাছের সঙ্গে বেধে পিটিয়ে হত্যা করছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমার স্বামীর হত্যার বিচার চাই।
তিনি আরো বলেন, আমার তিনটি নাবালক সন্তান এতিম হয়ে গেল, আমি এখন কিভাবে বাঁচবো আর কিভাবে চলবো। এ সময় বক্তরা অভিলম্বে আতিয়ার হত্যার সঙ্গে জড়িত সকল আসামিকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
মামলা সুত্রে জানা যায়,  গত ১১ ডিসেম্বর রাতে মামলার আসামি জিলাল সরদার ও আলমগীর আতিয়ারকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আসামি মোহাম্মাদ আলীর বাড়িতে যায়, সেখানে আতিয়ারকে গাছের সঙ্গে বেঁধে অন্য আসামিগণ কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে।
পরে আসামিরা চোরের অপবাদ দিয়ে পুলিশকে খবর দিয়ে চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। রাত সাড়ে ৪টার সময় হাসপাতালে আতিয়ার মারা যায়।
এ ব্যাপারে নিহত আতিয়ারের ভাই লুৎফর শেখ কোতয়ালী থানায় ১২জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। এই পর্যন্ত আসামি জিলাল সরদার ও বকুল সরদারকে পুলিশ গ্রেফতার করছে। বাকি আসামিরা এখনো গ্রেফতার হয়নি।