বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

আপডেটঃ ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ২৮, ২০১৯

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুবিপ্রবি) শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল নোমানের (২১) ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় একটি সুইসাইডাল নোটও উদ্ধার করা হয়।

বুধবার গভীর রাতে গোপালগঞ্জ শহরের চরসোনাকুড় এলাকার একটি মেস থেকে ওই শিক্ষার্থীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আব্দুল্লাহ আল নোমান বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি এন্ড মলিকুলার বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। তার বাড়ি চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায়।

ওই মেসের অন্যান্য শিক্ষার্থীরা  জানান, রাতে তারা আব্দুল্লাহ আল নোমানের রুমের সামনে গিয়ে ডাকাডাকি করে। কিন্তু কোন সাড়া না পেয়ে রুমের দরজা ভেঙ্গে ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান।

গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম  জানান, চরসোনাকুড় এলাকার একতলা একটি মেসে আব্দুল্লাহ আল নোমানসহ ১৫ জন ছাত্র থাকেন।

রাতে অন্য শিক্ষার্থীরা নোমানকে ডাকালে কোন সাড়া না পেয়ে তারা দরজা ভেঙ্গে ফেলে। এসময় তারা ফ্যানের হুকের সাথে তার মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

তিনি আরো জানান, ওই রুম থেকে আব্দুল্লাহ আল নোমানের নিজ হাতে লেখা একটি সুইসাইডাল নোট উদ্ধার করা হয়েছে। সেটি পুলিশের হেফাজতে রাখা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ওই ছাত্র গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে, মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে জানতে পারিনি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. রাজিউর রহমান  জানান, ওই ছাত্রের মায়ের সাথে কথা বলেছি। তার মা ছেলের মোবাইল ফোনে কল করেছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, রাত ৯ টার দিকে বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিতব্য মলিকুলার বায়োলজি পরীক্ষার বিষয় নিয়ে তার সাথে কথা বলেছেন। পরীক্ষার পর বাড়িতে যাবে বলেও জানিয়েছিলো নোমান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মো: শাহজাহান ছাত্রের ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, প্রক্টর ও ছাত্র উপদেষ্টা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।