আগুনে ঘি ঢাললেন অপু বিশ্বাস

আপডেটঃ ৯:৪২ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ১২, ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক : বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে সর্বোচ্চ সম্মানজনক পুরস্কার ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’। যে কারণে এই পুরস্কার নিয়ে সংশ্লিষ্ট মহলে আগ্রহ বরাবরই বেশি। বৃহস্পতিবার তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক প্রজ্ঞাপনে ২০১৭-২০১৮ সালের পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকেই কয়েকটি কারণে শুরু হয় সমালোচনা। ভারতীয় এক নাগরিকের নাম পুরস্কারের তালিকায় দেখে অনেকেই বিস্মিত হন।

পাশাপাশি ফজলুর রহমান বাবু ও মোশাররফ করিমকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে পুরস্কৃত করায় শুরু হয় বিতর্ক। এ প্রসঙ্গে বাবু এবং মোশাররফ করিম দুজনই গণমাধ্যমে তাদের বক্তব্য দিয়েছেন। তারাও যে বিষয়টি নিয়ে খুশি নন সেখানে সেটি স্পষ্ট। মোশাররফ করিম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তার এই পুরস্কার তুলে নেয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

সেই বিতর্কের রেশ কাটতে না কাটতেই জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার নিয়ে বিতর্কের আগুনে ঘি ঢাললেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। তিনি তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন: ‘কয়েকদিন আগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। এবার শ্রেষ্ঠ কৌতুক অভিনেতা চরিত্রে পুরস্কার পেয়েছেন মোশাররফ করিম ও ফজলুর রহমান বাবু ভাই। কিন্তু কৌতুক অভিনেতা ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়ায় অনেকে বিস্মিত হয়েছেন। জানতে পারলাম, মোশাররফ করিম ভাই এই পুরস্কার গ্রহণ করবেন না। এই পরিস্থিতিতে আমার নিজের একটি পুরোনো ঘটনা মনে পড়ে গেল।

আপনারা সবাই হয়তো জানেন, চাষী নজরুল ইসলাম আঙ্কেল পরিচালিত ‘দেবদাস’ চলচ্চিত্রে আমি অপু বিশ্বাস ‘পার্বতী’ চরিত্রে অভিনয় করেছি। ওটা ছিল প্রধান চরিত্র। যখন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান করা হলো সেখানে চন্দ্রমুখীকে প্রধান অভিনেত্রীর পুরস্কার দেয়া হয়। তখনই মনটা ভেঙে যায়। আমার বিশ্বাস ছিল, সেদিন চাষী আঙ্কেল বেঁচে থাকলে এর প্রতিবাদ করতেন। অভিনয় করেছি দর্শকদের জন্য। আমার পুরস্কার হলো দর্শক। দর্শকই আমাকে পুরস্কার দিয়েছেন। এটাই আমার বড় পুরস্কার। এবার যারা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাচ্ছেন সবাইকে আমার পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।’