নাগপুরে মিলবে বাংলাদেশের পছন্দের ‘দিল্লি’র উইকেট

আপডেটঃ ১১:০৫ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ১০, ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক : দিল্লির উইকেট দেখে বাংলাদেশ দলের প্রত্যেকের বিশ্বাস জন্মায় এ উইকেটে একটু মনোযোগ ধরে রাখতে পারলেই কিছু পাওয়া সম্ভব।

বিশেষ করে স্পিনাররা যদি নিয়ন্ত্রিত বোলিং করে তাহলে কথাই নেই! ম্যাচ নিজেদের বাগে আনতে পারবে সহজে। দিল্লির উইকেট ছিল মন্থর প্রকৃতির। বল ব্যাটে আসে ধীরে, স্পিনাররা পেয়েছিল বাড়তি সুবিধা। নিজেদের চিরচেনা উইকেটে আমিনুল, আফিফ, মোসাদ্দেক ও মাহমুদউল্লাহ বোলিংয়ে দ্যুতি ছড়ান। তাতে ভারতকে অল্পরানে আটকে সেই রান তাড়া করে বাংলাদেশ ম্যাচ জিতে সহজে।

নাগপুরে বাংলাদেশ পেতে পারে নিজেদের পছন্দমতো উইকেট। এখানকার পরিসংখ্যান ও উইকেটের চরিত্র বলছে, স্পিনাররা পাবেন বাড়তি সুবিধা।  বাংলাদেশের প্রত্যাশা নাগপুরের উইকেট সাহায্য করবে সফরকারীদের,‘আমরা ধারনা করছি উইকেটে স্পিন ধরবে। এটা হলে আমাদের স্পিনারদের সুযোগ বেড়ে যাবে। আমাদের এরকম এত বোলার আছে যাদের দিয়ে ২০ ওভারই পুরো করা সম্ভব।’

বিদর্ভ ক্রিকেট স্টেডিয়ামের উইকেটে তিন মাস আগে মাটি ফেলা হয়েছিল। মাঠে এখনও কোনো ম্যাচ হয়নি।  জানা গেছে, মাঠের উইকেট আগের মতোই আছে। উইকেট শতভাগ প্রস্তুত হয়নি বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকে। এরকম অপ্রস্তুত উইকেটে বল ব্যাটে আসবে ধীর গতিতে। বল উচুঁ নিচু হবে এমনটাই ধারনা।

বিদর্ভ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টি-টোয়েন্টি হয়েছে ১১টি। ম্যাচে গড় রান ১২৫ এর কাছাকাছি। ভারতকে এ মাঠেই ৭৯ রানে অলআউট করেছিল নিউজিল্যান্ড। বাঁহাতি স্পিনার মিচেল স্যান্টনার ১০ রানে পেয়েছিলেন ৪ উইকেট।  আগামীকাল নাগপুরে বাঁহাতি কোনো স্পিনার খেলানোর সম্ভাবনা আছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে ডমিঙ্গো বলেন, ‘প্রয়োজন হলে আমরা আমাদের পরিকল্পনা পরিবর্তন করবো। ’

স্কোয়াডে দুই বাঁহাতি স্পিনার আছেন তাইজুল ও সানী। দুজনকে এখনও এক ম্যাচেও খেলেননি। নাগপুরে সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে তারা সুযোগের অপেক্ষায় থাকবে নিশ্চয়ই।