নিকলীতে ভ্রাম্যমান আদালতে ১৩জনের সাজা ট্রাক্টর,এক্সেভেটসহ ভলগেট জব্দ!

আপডেটঃ ১০:৪৯ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ০৭, ২০১৯

নিকলী(কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি : কিশোরগঞ্জের হাওর উপজেলা নিকলীর বিভিন্ন স্থানে প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় নদীর পারকেটে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন করে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে । অভিযোগের ভিত্তিতে গত ৫ নভেম্বর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উপজেলার সিংপুর বাজার সংলগ্ন ভাংগন কবলিত এলাকায় নব নিযুক্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সামছুদ্দিন মুন্না ভাম্যমান আদালত পরিচালনা করে মাটিকাটার সাথে সম্পৃক্ত সাতটি নম্বরবিহীন লরী ট্রাক্টর, চারটি এক্সেভেটর, মাটি বহনকারী একটি ভলগেটসহ ১৩ জনকে আটক করেছেন।

বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারায় আটক ব্যক্তিদের প্রত্যেককে দুইমাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সামছুদ্দিন মুন্না।

সাজাপ্রাপ্ত ব্যাক্তিরা হলেন, কিশোরগঞ্জের নিকলী উপজেলার রফিকুল(১৯) মোঃ সোহাগ(২১) ,করিমগঞ্জ উপজেলার মোঃ মিজান (২৫) মোঃ আলমগীর (২২) মোঃ রাসেল (২২), মাহবুব (২২),জামাল(২৪),বাগেরহাট জেলার মোঃ আনসার(৩০),ফরিদপুর জেলার আবু মুসা (২২) বি-বাড়িয়া জেলার সেজান মিয়া (১৮) পটুয়াখালী জেলার মোঃ কামাল হোসেন (৫৫) ঢাকা জেলার মোঃ পারভেজ (২৫), পাবনা জেলার মোঃ রানা খান (২০)। এ ছাড়াও এ বিষয়ে বাগের হাট জেলার লোকমান মোল্লাহ (৫০),ফরিদপুর জেলার মনির শেখ(২৫) ও নারায়নগঞ্জ জেলার জহুরুল মোল্লা(৩৫) কে আসামী করে নিকলী থানায় একটি নিয়মিত মামলা রজু করে সাজাপ্রাপ্তদের জেল হাজাতে প্রেরন করা হয়েছে বলে জানান নিকলী থানার ওসি মোঃ শামসুল আলম সিদ্দিকী।
তবে জব্দকৃত ট্রাক মালিকদের বিরুদ্দে কোন মামলা হয়নি বলে জানা যায়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শাামছুদ্দীন মুন্না এ প্রতিনিধিকে জানান,মাটিকাটার চক্রটি দীর্ঘদিন যাবৎ ভাঙ্গন কবলিত সিংপুর এলাকায় বে-আইনি ভাবে মাটি উত্তোলন করে আসছিল।এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে এই ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়েছে।