বাংলাদেশের বদলে যাওয়ার রহস্য জানালেন আফিফ

আপডেটঃ ১০:০৪ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৬, ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক :সময়টা ছিল না নিজেদের পক্ষে।  মাঠের পারফরম্যান্স, ক্রিকেটারদের আন্দোলন ও সাকিব ইস্যুতে বাংলাদেশের ক্রিকেট ছিল ‘আইসিইউ’তে।  ডামাডোলের মাঝে মাহমুদউল্লাহর নেতৃত্বে ও মুশফিকের উপস্থিতিতে একঝাঁক তরুণ ক্রিকেটার নিয়ে ভারত সফরে আসা। এরপর চমকে দেওয়া এক পারফরম্যান্স।  দল বিশ্বাস করতে শুরু করে ঐক্যবদ্ধ পারফরম্যান্সে যেকোনো মাঠে, যেকোনো কন্ডিশনে ও যেকোনো প্রতিপক্ষকে হারানো সম্ভব।

কিন্তু এ আত্মবিশ্বাস ও এ রণকৌশলের পেছনে থাকে রহস্য।  মঙ্গলবার রাজকোটে সেই রহস্য জানিয়েছেন বাংলাদেশের তরুণ তুর্কী আফিফ হোসেন।  আফিফ জানিয়েছেন কিভাবে দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং কোচ রাসেল ডমিঙ্গো তাদের মাঠের পারফরম্যান্সে উদ্বুদ্ধ করেছে এবং মাঠের বাইরের ইস্যুগুলো থেকে বিরত রেখেছেন।  মাহমুদউল্লাহ ম্যাচের আগের দিন টিম মিটিংয়ে বৈঠকে সবার উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘যা তোমরা ভালো পারো তাই করো। আমরা একটি দল হিসেবে খেলেছি।’ আফিফ জানিয়েছে, প্রথম টি-টোয়েন্টিতে আগ্রাসন দেখানোর পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নেমেছিল দল। ‘আমাদের পরিকল্পনার অংশ ছিল আমরা মাঠে আক্রমণাত্মক থাকবো এবং নিজেদের সেরাটা দেব।’ এছাড়া সিনিয়র ক্রিকেটারদের অবদানের কথা স্মরণ করে আফিফ বলেন,‘আমাদের যারা সিনিয়র খেলোয়াড় আছেন তারা আমাদের জুনিয়রদের অনেক বেশি সহযোগিতা করছেন।  এই জিনিসটা আমাদের অনেক সাহায্য করছে চাপমুক্ত ক্রিকেট খেলতে। তারা সব সময় সহযোগিতা করে যাচ্ছে। আশা করি সামনেও কোনো সমস্যা হবে না।’

টিম ম্যানেজম্যান্ট দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে মিশে আছে ছাঁয়া হয়ে। রাসেল ডমিঙ্গোসহ অন্যান্যরা আফিফদের মাঠমুখী করে রাখতে সব ব্যবস্থা করে রেখেছেন, ‘উনি (ডমিঙ্গে) আমাদের সব সময়ই বলেন মন খুলে ক্রিকেট খেলতে। যে যেভাবে খেলতে পছন্দ করে তাকে ওই স্বাধীনতাটা দেয়া হচ্ছে বিধায় এভাবে খেলতে পারছে।’ স্পিন বোলিং কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টরির কথা বলতে গিয়ে আফিফ বলেন, ‘স্পিন বোলিং কোচ আমাদের নিয়ে কাজ করছেন। ভেতরে কিভাবে বল করতে হবে সেগুলো নিয়ে কাজ করছি।’

দিল্লিতে দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ভারতকে হারানো বাংলাদেশ এখন সিরিজ জয়ের মিশনে। দেখার বিষয় সিনিয়রদের ছাঁয়ায় আর তরুণদের মন খোলা পারফরম্যান্সে রাজকোটে আরেকবার বিজয়ের পতাকা উড়াতে পারে কিনা লাল-সবুজ জার্সীধারীরা।