মধ্যরাতে বিক্ষোভে উত্তাল জাবি

আপডেটঃ ১০:০২ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৬, ২০১৯

সাভার সংবাদদাতা : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করে আবারো ভিসির বাসার সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করছেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার রাতে ১১টার পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে দলে দলে বেরিয়ে আসতে শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। রাতে ছাত্রীরা হলের গেটের তালা ভেঙে মিছিল করে আন্দোলন স্থলে যোগ দেন।

এদিকে, সাড়ে নয়টার দিকে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে শতাধিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আন্দোলনকারীদের সংগঠক সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের (মার্ক্সবাদী) বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলনে ভীত হয়ে ছাত্রলীগ দিয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালিয়েছেন উপাচার্য ফারজানা ইসলাম। আবার এই হামলার ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে তড়িঘড়ি করে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের নির্দেশ দেয়। আমরা সর্বসম্মতভাবে এই নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করছি।

এর আগে গতকাল সোমবার রাত থেকে ভিসির পদত্যাগের দাবিতে তার বাসভবনের সামনে অবস্থান নেয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা। পরে সেখানেই পাল্টা অবস্থান নেন উপাচার্যের পক্ষের শিক্ষক ও কর্মচারীরা।

পরে মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মিছিলযোগে ভিসির বাসভবনের সামনে এসে আন্দোলনকারীদের উপর হামলা চালায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সেসময় তারা আন্দোলনে জামায়াত শিবিরের ইন্ধন রয়েছে বলে দাবি করেন।

এদিকে ছাত্রলীগ কোনো হামলা চালায়নি দাবি করে জাবি ভিসি তৎক্ষণাৎ সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘তারা (ছাত্রলীগ) সুশৃঙ্খলভাবে বিশৃঙ্খলাকারীদের সরিয়ে দিয়েছে।’

পরে তাৎক্ষণিক সিন্ডিকেট সভায় বসে বিশ্ববিদ্যালয় অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে বিকেলের মধ্যে শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেয় জাবি প্রশাসন। তবে সেই নির্দেশ প্রত্যাখ্যান করে আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেয় আন্দোলনকারীরা। এদিকে আন্দোলনরত শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে শিক্ষক সমিতি থেকে পদত্যাগ করেছেন ৪ শিক্ষক।