কলমাকান্দায় নবজাতকের প্রাণ গেল ভুল চিকিৎসায়

আপডেটঃ ১২:১২ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৪, ২০১৯

মো. জাফর উল্লাহ, কলমাকান্দা (নেত্রকোণা) সংবাদদাতা:নেত্রকোণার কলমাকান্দায় পল্লী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় নবজাতকের প্রাণ গেল। গর্ভবতী মায়ের অবস্থা সংকটাপন,œ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ। পরে রবিবার ভোরে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে মায়ের গর্ভ থেকে নবজাতকের মৃতদেহটি বের করা হয়েছে।
এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার রংছাতী ইউনিয়নের তেরতোপা গ্রামে। গর্ভবতী মা ঝর্ণা আক্তার (২৮) ওই গ্রামের দিনমজুর জামাল মিয়ার স্ত্রী।
পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, শুক্রবার ঝর্ণার প্রসব ব্যাথা উঠলে স্থানীয় ধাত্রী এসে পাঁচগাও বাজারে রিয়া মেডিকেল হলের স্বত্বাধিকারী পল্লী চিকিৎসক নাজিম উদ্দিন কে খবর দেন। এসময় এসে ডেলিভারি জন্য তিনি দুটি ইনজেকশন স্যালাইনের মাধ্যমে পুশ করে। এরই মধ্যে ঝর্ণার অবস্থার আরো অবনতি হতে থাকলে শনিবার সন্ধ্যায় কলমাকান্দায় সরোয়ার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে আল্ট্রাসনোগ্রাম করানো হয়। ওই রিপোর্টে ভুল চিকিৎসায় নয় মাসের নবজাতকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন ডাঃ আশেক উলাহ খান। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে ভর্তি করা হয় ঝর্ণাকে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সাকের আহম্মেদ জানান, শনিবার সন্ধ্যায় ঝর্ণা আক্তারের আল্ট্রাসনোগ্রাম রিপোর্টে দেখা গেছে নয় মাসের নবজাতক গর্ভেই মারা গেছে। এরপর শারীরিক অবস্থা আরও অবনতি হলে ওই রাতেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
অভিযুক্ত পল্লী চিকিৎসক নাজিম উদ্দিনের নিকট মুঠফোনে জানতে চাইলে ঝর্ণা আক্তার এর চিকিৎসা দেওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন আমি কোনো ভুল চিকিৎসা দেইনি। প্রাথমিক চিকিৎসার পর আমি কলমাকান্দা হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।