প্রেমিকার ফাঁদে পুলিশ কর্মকর্তা ধরা

আপডেটঃ ১০:৩৮ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ২৩, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক :রংপুরে কামরুল হাসান নামে এক পুলিশ কর্মকর্তাকে প্রেমিকাসহ আটক করে থানায় নিয়েছে পুলিশ। জেলা মহিলা পরিষদের মাধ্যমে খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে নগরীর বনানীপাড়ার একটি ভাড়া বাসা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

কামরুল হাসান নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। ৩৬তম বিসিএসে পুলিশ বাহিনীতে চাকরি পেয়ে সদ্য প্রশিক্ষণ শেষ করেছেন তিনি। আর মেয়েটির নাম রোকসানা পারভীন স্মৃতি। তিনি ২০১৬ সালে কারমাইকেল কলেজ থেকে ইংরেজি বিষয়ে মাস্টার্স সম্পন্ন করেছেন। স্মৃতির বাড়ি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বালারহাট ইউনিয়নে।

জানা যায়, প্রায় দুই বছর আগে কামরুল ও স্মৃতির মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারা রংপুর নগরীর বিভিন্ন এলাকায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করতেন। গত ৩ মাস আগে বনানীপাড়ার একটি বাসা ভাড়া নেন তারা। এরই মধ্যে ৩৬তম বিসিএসে পুলিশ বাহিনীতে চাকরি পেয়ে সদ্য প্রশিক্ষণ শেষ করেন কামরুল। আগামী সপ্তাহে চট্টগ্রাম রেঞ্জ পুলিশে যোগদান করার কথা তার। সম্প্রতি মেয়েটি বিয়ের জন্য চাপ দিলে এতে অস্বীকৃতি জানান কামরুল। একপর্যায়ে স্মৃতি মহিলা পরিষদে লিখিত অভিযোগ দেন।

এদিকে মঙ্গলবার কামরুল বনানীপাড়ার ওই বাসায় গেলে স্মৃতি মহিলা পরিষদের নেতৃবৃন্দকে তার আসার বিষয়টি জানান। পরে মহিলা পরিষদের নেতৃবৃন্দ বনানীপাড়া গিয়ে কামরুলকে দেখার পর পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে নগরীর কোতোয়ালি থানা পুলিশ সেখান থেকে দুইজনকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

রংপুর জেলা মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রুমানা জামান জানান, স্মৃতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তাদের দুইজনকে থানায় নিয়ে যায়।

এদিকে খবর পেয়ে গণমাধ্যমকর্মীরা থানায় গেলেও এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রশিদ। তবে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওসি জানান, দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।