বিলুপ্তির পথে টিউবওয়েল

আপডেটঃ ৫:৩৬ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ২০, ২০১৯

মোঃ রাজিব হোসেন,সি এন এ নিউজ, গাজীপুর :কোন জলবাহী শিলা স্তর যন্ত্রের সাহায্যে ভেদ করে ভূ-গর্ভস্থ পানি উত্তোলনের একটি কৌশল যা বাংলাদেশ, নেপাল, চিনদেশসহ উপমহাদেশের বিভিন্ন দেশে এ পদ্ধতিতে পানি উত্তোলন করা হতো। এটি নাম নলকূপ (চাপ কল) বা টিউবওয়েল। প্রথমে মাটিতে ছিদ্র করে কুপ খনন করে ওই ছিদ্র পথে লোহা অথবা প্লাস্টিক পাইপ ব্যবহার করা হয়। ভূ-গর্ভস্থ পানি তোলার জন্য আমাদের দেশে কয়েক ধরনের নলকূপ ব্যবহার করা হয়। সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃতটির নাম চাপকল বা টিউবওয়েল।

আট থেকে ৯ বছর আগেও টিউবওয়েলের চাহিদা ছিল ব্যাপক। যাহার হিসাব করলে সমগ্র বাংলাদেশে প াশ লক্ষ্যের ও অধীক ছিল। আধুনিকতার ছোয়ায় আজ সেই চাপ কল বা টিউবওয়েল আর দেখা যায় না। এক সময় প্রত্যেকটি জেলা, থানা, গ্রাম মহল্লা চাপ কলের ব্যবহার ছিল। গাজীপুর জেলার শ্রীপুর, কাপাসিয়া, কালিগঞ্জ ও কালিয়াকৈর এলাকায় ব্যপক টিউবওয়েল এর ব্যবহার করা হত।

টিউবওয়েল ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের বলেন এক সময় আমরা টিউবওয়েল এর পানি ব্যবহার করতাম, আধুনিকতার ছোঁয়ায় তা আজ বিলপ্তির পথে। আমি মনে করি আমাদের আবার টিউবওয়েল এর পানি ব্যবহার করা দরকার।
বিশ্ব যখন প্রযুক্তির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, তখন সময়ের বির্বতনে কালের পরিক্রমায় এক সময়ের পানি উৎসের একমাত্র উপায় ছিল টিউবওয়েল। তা আজ আধুনিকতার ছোঁয়ায় প্রায় বিলপ্তির পথে। রান্না-বান্না, গোসল, ফসল ফলানোসহ প্রায় সব কাজেই ব্যবহৃত মাধ্যম ছিল টিউবওয়েল।

বিভিন্ন বাসা-বাড়ি ও কল কারখানার গভীর নলকুপ স্থাপনের কারণে দিন দিন পানির স্তর নীচের নেমে যাচ্ছে। যার ফলে এখন টিউবওয়েল দিয়ে পানি উত্তোলন করা সম্ভব হচ্ছে না। মোটর দিয়ে পানি উত্তোলনের ফলে বেড়ে গেছে কৃষকের ব্যয়ভার। অপর দিকে হুমকির মুখে রয়েছে ভূ-খন্ড। মোটর ব্যবহারে বিদ্যু ও পানির অপচয় হ্েচ্ছ।

এ ব্যপারে উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ কর্মকর্তা ডা. ছদেকুর রহমান আকন্দ বলেন- টিউবওয়েলের পানি বিশুদ্ধ। আর সাপলায়ের পানি ধারা নানা রকমের পানি বাহিত রোগ হয়. এবং নানা ধরণের জীবনো হয়। টিউবওয়েল চেপে পানি উত্তোলন করলে মানুষের শরীরের অবস্থা ভালো থাকে। শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।