জি কে শামীম ফের ৯ দিনের রিমান্ডে

আপডেটঃ ৫:৫৬ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০২, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : অর্থপাচার এবং অস্ত্র আইনের মামলায় জি কে শামীমের ফের ৯ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জসিম শুনানি শেষে অর্থপাচার আইনের মামলায় পাঁচ দিনের এবং অস্ত্র আইনের মামলায় চার দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে জি কে শামীমের অর্থপাচারের মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু সাঈদ ১০ দিন এবং অস্ত্র মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর এসআই শেখর চন্দ্র মল্লিক সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন।

অর্থপাচারের মামলার রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, আসামির বিরুদ্ধে অর্থপাচার আইনের মামলা ছাড়াও অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলা রয়েছে। র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে চালানো অভিযানে জি কে শামীমের অফিসের লোহার সিন্দুক থেকে নগদ অর্থ, চেক বই, এফডিআর ও বিদেশি মুদ্রা পাওয়া যায়। সেখানে বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ কোটি ৮১ লাখ ২৮ হাজার টাকা ও ৯ হাজার ইউএস ডলার পাওয়া যায়। এছাড়া, আসামির মায়ের নামে ১০টি এফডিআরে মোট ১৬৫ কোটি ২৭ লাখ ৬০ হাজার টাকাসহ ৩৪টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও চেক বইয়ের পাতা জব্দ করা হয়। র‌্যাবের নায়েব সুবেদার মো. মিজানুর রহমান বাদী হয়ে অর্থপাচার আইনের এ মামলাটি করেন।

অস্ত্র মামলায় রিমান্ডের আবেদনে বলা হয়, ঘটনার প্রাথমিক অনুসন্ধানে প্রকাশ পায় যে, এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম (জি কে শামীম) একজন চিহ্নত চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, মাদক ও জুয়া ব্যবসায়ী (ক্যাসিনো) হিসেবে পরিচিত। এজাহারনামীয় অন্য আসামিরা (জি কে শামীমের সাত দেহরক্ষী) দীর্ঘদিন ধরে নিজ নামে লাইসেন্স করা অস্ত্র প্রকাশ‌্যে বহন, প্রদর্শন ও ব্যবহার করে লোকজনের মধ্যে ভীতি সৃষ্টি করেন। টেন্ডারবাজি, মাদক ও জুয়ার ব্যবসাসহ স্থানীয় বাস টার্মিনাল, গরুর হাটে চাঁদাবাজি করে নামে-বেনামে বিপুল পরিমাণ অবৈধ অর্থের মালিক হওয়ার বিষয়টি প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হলেও ব্যাপক তদন্তের প্রয়োজন আছে। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে আসামিদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা প্রয়োজন।

জি কে শামীমের পক্ষে আব্দুর রহমান হাওলাদারসহ কয়েকজন আইনজীবী রিমান্ড বাতিলপূর্বক জামিন প্রার্থনা করেন। অপরদিকে, রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করে। উভর পক্ষের শুনানি শেষে আদালত জামিন না মঞ্জুর করে রিমান্ডের আদেশ দেন।

গত ২০ সেপ্টেম্বর গুলশানের নিকেতনে নিজ কার্যালয় থেকে জি কে শামীমকে সাত দেহরক্ষীসহ আটক করে র‌্যাব। পরে তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক ও অর্থপাচার আইনে তিনটি মামলা হয়। ২১ সেপ্টেম্বর জি কে শামীমের অস্ত্র ও মাদকের দুটি মামলায় পাঁচ দিন করে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।