কালীগঞ্জে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময় সভা

আপডেটঃ ৬:০৯ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৯

সি এন এ নিউজ,কালীগঞ্জ (গাজীপুর) : গাজীপুরের কালীগঞ্জে পূজা ম-পে নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর টহল জোরদার, সার্বক্ষনিক বিদ্যুৎ সরবরাহ এবং ফায়ার সার্ভিসের দমকল টিম সার্বিকভাবে সহযোগিতার লক্ষ্যে কালীগঞ্জ উপজেলার পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দদের সাথে উপজেলা প্রশাসন এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল বুধবার সকালে কালীগঞ্জ উপজেলার শহীদ ময়েজউদ্দিন অডিটোরিয়ামে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
কালীগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক প্রনয় কুমার দাসের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন- কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শিবলী সাদিক, ওসি একেএম মিজানুল হক মিজান, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শর্মিলা রোজারিও, কালীগঞ্জ পৌর মেয়র মো. লুৎফুর রহমান, মোক্তারপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. শরিফুল ইসলাম তোরন, তুমলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান আবু বকর বাক্কু, বাহাদুরসাদী ইউপি চেয়ারম্যান শাহাবুদ্দীন আহমেদ, কালীগঞ্জ পূজা উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব শ্যামল পাল প্রমুখ।
কালীগঞ্জ পৌরসভার ৭টি, বাহাদুরসাদী ইউনিয়নে ৪টি, জামালপুর ৪টি, জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নে ৭টি, তুমলিয়া ২টি, নাগরী ৮টি, বক্তারপুর ৭টি ও মোক্তারপুর ইউনিয়নের ৮টিসহ সর্বমোট ৪৭টি স্থানে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বড় উৎসব শারদীয় দুর্গা পূজা একযুগে অনুষ্ঠিত হবে।
মতবিনিময় সভায় কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শিবলী সাদিক বলেন, মাননীয় সংসদ সদস্য মেহের আফরোজ চুমকি তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রতিটি পূজা ম-পের জন্য নগদ ২০ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করেছেন। এছাড়াও গাজীপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে প্রতিটি পূজা ম-পের জন্য ৫শত কেজি চাউল বরাদ্দের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এক রকম গেঞ্জি পরিহিত নারী/পুরুষ স্বেচ্ছাসেবকরা পূজা মন্দির ও বিসর্জনস্থলে সার্বক্ষনিক পাহারায় থাকবে। প্রশাসন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও বিদ্যুৎ বিভাগ ও ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে সার্বক্ষনিক যোগাযোগ রক্ষায় এবং সংশ্লিষ্টদের মোবাইল নম্বর উৎসব প্রাঙ্গনে দৃশ্যমান স্থানে টাঙ্গিয়ে রাখতে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দদের প্রতি তিনি আহবান জানান।
কালীগঞ্জ থানার ওসি একেএম মিজানুল হক মিজান বলেন, সনাতনী ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম গুরুত্বর্পূণ উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজা। ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা আজ তারা কোনো দিক থেকে পিছিয়ে নেই, তারা সব দিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছেন। আপনারা নিয়ম মেনে চললে, কালীগঞ্জ থানায় দুর্গাপূজা হবে একটি মডেল উৎসব। মদ্যপ অবস্থায় কেউ যেন পূজার মধ্যে বিশৃঙ্খলা না করতে পারে সেদিকে পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দদের খেয়াল রাখতে হবে। কারো ধর্মানুভূতিতে আঘাত লাগে এরুপ কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে হবে। পাশাপাশি কোনো প্রকার গুজবে বিভ্রান্ত না হয়ে তাৎক্ষনিক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে অবহিত করতে হবে।