জোর করে ভিডিও ডিলেট করালো ছাত্রলীগ সভাপতি

আপডেটঃ ৫:১৮ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১০, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক :ছাত্রলীগের দুই নেতার মারামারির ভিডিও ধারন করায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির এক সদস্যকে গাড়িতে তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরে তার ধারণ করা ভিডিওটি জোরপূর্বক ডিলেট করানো হয়।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের বিরুদ্ধে এ অভিযাগ উঠে। ভুক্তভোগী ওই সাংবাদিকের নাম নুর হোসেন ইমন। তিনি দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকার বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দুই সহসভাপতির মধ্যে হাতাহাতি হয়। এক পর্যায়ে একজনের আঘাতে আরেকজন আহত হয়। আর এ ঘটনার ভিডিও ধারন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির ওই সদস্য।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আবির রায়হান বলেন, প্রাথমিকভাবে শোভনের সঙ্গে কথা বলে ঘটনাটির প্রতিবাদ জানিয়েছি। এ ধরণের আচরণ প্রত্যাশিত নয়। আমরা ছাত্রলীগকে ক্ষমা চাইতে বলেছি। যদি তারা আনুষ্ঠানকিভাবে ক্ষমা না চান, তবে সমিতির সভা ডেকে পরবর্তী করণীয় ঠিক করব।