প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপির তিন অঙ্গীকার

আপডেটঃ ৯:২১ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ ১ সেপ্টেম্বর। ১৯৭৮ সালের এই দিনে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন।

প্রতিষ্ঠার পর বর্তমান সময়ে কঠিন সময় পার করছে দলটি। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া কারাগারে। নেতা-কর্মীরা আন্দোলনে সুবিধা করতে পারছেন না। গত কয়েক সংসদ নির্বাচনে দলের চরম ভরাডুবি। নেই আন্দোলন। নানা সমস্যায় জর্জরিত সাংগঠনিক অবস্থা। সব মিলিয়ে বিএনপি অনেকটাই কোণঠাসা। এবার ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে দলটি তিনটি লক্ষ্য নিয়ে সামনে এগোতে চায়।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর শনিবার  বলেন, অঙ্গীকার হবে দলকে সংগঠিত করা। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা এবং গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা।

এই তিনটি বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে এগোনোর কারণ বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ও ২০১৯ সালের ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে কোনোভাবেই সুবিধা করতে না পারায় নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশা দেখা দিয়েছে। গত ১০ বছরে বিভিন্ন সময়ে মাঠে নামলেও সফল কোনো আন্দোলন করতে পারেনি বিএনপি। সবশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট দলের নেতা-কর্মীদের মাঝে আশা জাগিয়ে ছিল। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। ভোটের মাঠে ফলাফলে বিএনপির স্কোর একেবারে শুন্য। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিএনপি কখনো এতটা রাজনৈতিক সংকটে পড়েনি।

নেতারা বলছেন, দলের এহেন অবস্থা আর হতাশা কাটিয়ে উঠতে চায়। এজন্য দলকে চাঙা করতে হবে। দল চাঙা না হলে আন্দোলন অসম্ভব। আর আন্দোলন না হলে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনা কঠিন হয়ে পড়বে। নেতারা আরো বলেন, ইতিমধ্যে দলকে সংগঠিত করার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বাণীতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, জনগণের নিরাপত্তা বিধানের জন্যই গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলন বেগবান করতে হবে। তিনি প্রতিহিংসার শিকার।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের ক্রান্তিলগ্নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। অন্যায় ও জুলুমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এই দিনে দলের সব নেতা-কর্মীদের আরো গতিশীল করার ক্ষেত্রে কাজ করার জন্য প্রস্তুত থাকার আহবান জানাচ্ছি।