নেত্রকোনায় দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ১০

আপডেটঃ ৩:৩৩ অপরাহ্ণ | আগস্ট ২৬, ২০১৯

মোনায়েম খান, সি এন এ নিউজ ,নেত্রকোনা: সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের বাড়ির সীমানায় গাছের ডাল কাটাকে কেন্দ্র করে আজ সোমবার সকালে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে নেত্রকোনা সরকারি কলেজের এইচএসসি প্রথম বর্ষের ছাত্রী মিনি আক্তার(১৮)সহ উভয়পক্ষের অনন্ত ১০জন আহত হয়েছে। গুরুতর আহত আনোয়ারা বেগম (৫০), আরব আলী (৩৫), মিনি আক্তারকে (১৮) নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সদর উপজেলার ঠাকুরাকোনা ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের কিতাব আলীর বাড়ির সীমানায় সোমবার সকালে একই গ্রামের মৌজালী মিয়া ও তার লোকজন গাছের ডাল কেটে ফেলে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে মৌজালি মিয়া, ইসমাইল, জাকির হোসেনের নেতৃত্বে ১৫-২০জন দেশীয় ধারালো অস্ত্র নিয়ে কিতাব আলীর বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে সময় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আনোয়ারা বেগম (৫০), আরব আলী (৩৫), মিনি আক্তার গুরুতর আহত হন। এলাকাবাসী তাদেরকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে কিতাব আলীর লোকজনের ওপর মৌজালীর পক্ষে মশুয়া গ্রামের মিন্টু মিয়া, পাহাড়পুরের ওমর ফারুকসহ বেশ কয়েকজন ফের হামলা চালায়। খবর পেয়ে সেখানে পুলিশ গেলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে।
নেত্রকোনা মডেল থানার অিফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম জানান, পাহাড়পুর গ্রামে দুই পক্ষের মধ্যে
সংঘর্ষ হয়েছে। কয়েকজন নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে এখনও থানায় কোন পক্ষই লিখিত অভিযোগ করেনি।