সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করানো হলো না তাসলিমার

আপডেটঃ ১০:১১ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ২১, ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত নারীর পরিচয় পাওয়া গেছে। ওই নারীর নাম তাসলিমা বেগম রেনু (৪০)।  তিনি পরিবার নিয়ে মহাখালীতে থাকতেন। তিনি স্বামী পরিত্যক্তা এবং দুই সন্তানের জননী বলে তার পরিবার জানিয়েছে।

শনিবার সকালে উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে অজ্ঞাত এক নারী নিহত হন। পরে সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে এসে তার পরিবারের সদস্যরা লাশ শনাক্ত করেন।

তাসলিমা বেগম রেনুর ভাগিনা নাসির উদ্দীন টিটু শনিবার রাতে জানান, আগে তিনি তার স্বামীর সঙ্গে ওই স্কুলের পাশে আলী মোড় এলাকায় থাকতেন। পারিবারিক কলহের জেরে দুই বছর আগে স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয় তার। এরপর থেকে মহাখালীর ওয়ারলেস গেটের ৩৩/৩ নম্বর বাসায় থাকতেন তাসলিমা। শনিবার সকালে তার এক সন্তানকে ওই স্কুলে ভর্তি করার জন্য খোঁজ নিতে গিয়েছিলেন তিনি। সেসময় স্থানীয়রা তাকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করে।

নাসির উদ্দীন আক্ষেপ করে বলেন, ‘একটা মিথ্যা অজুহাত দিয়ে তাকে মেরে ফেলা হলো। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।’

বাড্ডা থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘নিহতের লাশ শনাক্ত করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।’