নেত্রকোণা মগড়া নদীতে সেতু না থাকায় জনদূর্ভোগ চরমে

আপডেটঃ ১১:৪৯ অপরাহ্ণ | জুন ১৯, ২০১৯

মোনায়েম খান, সি এন এ নিউজ, নেত্রকোণা: নেত্রকোণা সদর উপজেলার চল্লিশা ইউনিয়নের সাকুয়া বাজার সংলগ্ন মগড়া নদীর ওপর সেতু নির্মাণ না করায় । শহর ও নদীর ও পারের লোকজন বাঁশের সাকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে পার হচ্ছেন এবং বর্ষার মৌসমের সময় নৌকা দিয়ে পারাপার হতে হয়।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, সাকুয়া বাজারে মগড়া নদীর ওপর সেতু না থাকায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা সারা বছরই বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে নদী পারাপার হচ্ছে। মগড়া নদী শহরের একটি অংশ হচ্ছে সাকুয়া বাজারের আশ পাশে কয়েকটি গ্রাম। নদীর অপার হচ্ছে ছোটগাড়া, বড়গাড়া, তেলিগাতিসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম। পাকা সেতুর অভাবে সারা বছরই তারা এ সাঁকো দিয়ে নদী পার হয়। বিশেষ করে বর্ষাকালে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের নদীতে পড়ে যাওয়ার মতো দুর্ঘটনাও বেশ কয়েকবার ঘটেছে।
শ্রীধরপুর গ্রামের আব্দুর রব,বড়গাড়া গ্রামের আব্দুল হক, গাড়া গ্রামের আপেল মাহমুদ জানান, সাকুয়া বাজারের পাশে মগড়া নদীতে সেতু না থাকায় বাজার তীরবর্তী ছোটগাড়া,বড়গাড়া,গ্রাম সাতপাইসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় ২০ হাজার মানুষ এবং স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী,ব্যবসায়ী লোকজন সেতু না থাকায় এই ঝুঁকিপূর্ণ বাঁশের সাঁকো ও ছোট নৌকা দিয়ে প্রতিনিয়তই ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হতে হয়। তারা আরো জানান, সেতু না থাকার কারনে এসব এলাকার শত শত কৃষক বর্ষায় ও শুকনো মৌসুমে তাদের উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে পারছেন না।আমরা পাকা সেতুর জন্য সরকারের কাছে দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে আসলেও প্রতিকারের ব্যবস্থা নেই। আমরা এলাকাবাসী এখানে একটি সেতু নির্মানের দাবি জানাচ্ছি।