এবার কেন্দুয়ায় অচেতন অবস্থায় কিশোরীকে উদ্বার

আপডেটঃ ৫:৫৪ অপরাহ্ণ | জুন ১৩, ২০১৯

মহিউদ্দিন সরকারঃ (কেন্দুয়া প্রতিনিধি)ঃ : নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার গোগবাজার সড়কে জামতলা এলাকার থেকে অচেতন অবস্থায় এক কিশোরীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।বুধবার (১২ জুন) দিনগত রাত পৌনে ১২টায়। কিশোরী উপজেলার পাইকুরা ইউনিয়নের বৈরাটী গ্রামের শহীদ মিয়ার মেয়ে।মাহবুব ও ফেরদৌস নামে দুই ভ্যানচালক সড়ক থেকে কিশোরীকে অচেতন অবস্থায় তুলে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে ভর্তি করে রেখে যান।কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. মাহমুদুর রহমান এ প্রতিনিধিকে জানান, কিশোরীর যখন কিছুটা জ্ঞান ফিরে আসে জিজ্ঞাসাবাদ করলে তার নাম-পরিচয় সম্পর্কে জানিয়েছেন। বিষয়টি কেন্দুয়া থানা কর্তৃপক্ষকেও অবগত করা হয়েছে।
পরে উপ-পরিদর্শক (এসআই) জাহাঙ্গীর হাসপাতালে এসে প্রয়োজনীয় তথ্য নিয়ে যান।কিশোরী স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এলে বিস্তারিত জানা যাবে বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসক মাহমুদুর রহমান।
এদিকে বৃহস্পতিবার দুপুরে খবর পেয়ে হাসপাতালে কিশোরীকে দেখতে যান কেন্দুয়া প্রেসকøাবের সাধারন সম্পাদক লিয়াকত আলী চৌধুরী কাজল, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক কল্যাণী হাসান, সাবেক সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক রাখাল বিশ্বাস, সহ সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক মহিউদ্দিন সরকার, সাংবাদিক হুমায়ুন কবীর। সাবলম্বী উন্নয়ন সমিতির কো-অর্ডিনেটর চয়ন সরকার, মাঠ কর্মকর্তা অজিত সরকার। এ সময় সাংবাদিক ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সদস্যদের কিশোরী জানায়,একাধিক যুবক অনৈতিক কাজের পর তাকে জামতলা এলাকায় ফেলে রেখে যায়।
কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রাশেদুজাজামান সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনাটি সর্ম্পকে আমরা অবগত হয়েছি। কিশোরীকে নেত্রকোনার আধুনিক সদর হাসপাতালে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য বলেছি। তদন্ত কাজ অব্যাহত রয়েছে।