মোদিকে অভিনন্দন জানালেন রাহুল

আপডেটঃ ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ | মে ২৪, ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের লোকসভা নির্বাচনে পরাজয় মেনে নিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। একই সঙ্গে তিনি এনডিএ’র বিপুল জয়ে বিজেপি ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে কংগ্রেস সভাপতি এই অভিনন্দন জানান।

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জোট বিপুল ব্যবধানে জয়লাভ করে পুনরায় সরকার গঠন করছে। ফের ক্ষমতায় ফেরার আনন্দে যখন উচ্ছ্বসিত দলটির কর্মী-সমর্থকেরা সে সময় নরেন্দ্র মোদিকে অভিনন্দন জানান কংগ্রেস সভাপতি।

রাহুল গান্ধী বলেন, দেশে অনেক মানুষ রয়েছেন, যারা কংগ্রেসকে চান। আমি বলব, আমি তাদের সবার পাশে রয়েছি। আমি দেশের মানুষকে স্বাগত জানাই, শ্রদ্ধা করি।

কংগ্রেস সভাপতি বলেন, আম জনতা স্পষ্ট মতামত জানিয়েছে- আমি সেই রায়কে স্বাগত জানাই। জনতার রায় শিরোধার্য।

কংগ্রেসের একনিষ্ঠ যেসব কর্মী ভোটের সময় দলের জন্য নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করেছেন, তাদেরও শুভেচ্ছা জানান তিনি। এ সময় আমেথিতে তার নিজের আসনে বিজয়ী স্মৃতি ইরানিকে অভিনন্দন জানিয়ে রাহুল বলেন, আশা করব, তিনি আমেথির মানুষের দেখভাল করবেন।

সবশেষ পাওয়া ভোটের ফলাফল অনুযায়ী দেখা যাচ্ছে, মোদির জোট পেয়েছে ৩৫০টি আসন। কংগ্রেস ৯১ ও অন্যান্য দল পেয়েছে ১০১ টি আসন।

ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ বা লোকসভার ৫৪৩ আসনের মধ্যে ৫৪২টিতে নির্বাচন হয়েছে সাত পর্বে। সরকার গঠন করার জন্য কোনো দল বা জোটকে পেতে হবে ২৭২টি আসন।

প্রাথমিকভাবে বেসরকারি ফলাফলে ইতোমধ্যেই এ সংখ্যা পেরিয়ে গেছে মোদির এনডিএ জোট।

এর আগে ২০১৪ সালে ভারতের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছিল। সেবার তারা পায় ২৮২ আসন। আর বিজেপি জোট পায় ৩৩৪ আসন।

অপর দিকে কংগ্রেস পেয়েছিল ৪৪টি আসন এবং জোটে তারা পায় ৬০টি আসন। অন্যরা পায় ১৪৯ আসন।

প্রসঙ্গত, ১১ এপ্রিল শুরু হয়ে গত ১৯ মে শেষ হয় ভারতে পার্লামেন্ট নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। এর আগে ১১ এপ্রিল প্রথম দফার ভোট, ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয়, ২৩ এপ্রিল তৃতীয়, ২৯ এপ্রিল চতুর্থ, ৬ মে পঞ্চম, ১২ মে ষষ্ঠ দফার ভোট গ্রহণ করা হয়। সব শেষ সপ্তম দফার ভোট হয় ১৯ মে।

ভারতে সাধারণ নির্বাচনে ভোটগ্রহণের পর সঙ্গে সঙ্গে গণনা করা হয় না। ব্যালট বাক্স কিংবা ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনগুলো (ইভিএম) কঠোর নিরাপত্তায় সংরক্ষিত থাকে।

নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী, আজ স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে শুরু হয় ভোট গণনা।