বাউফলে অগ্নিদগ্ধ একই পরিবারের চার জনের দাফন সম্পন্ন

আপডেটঃ ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ | মে ২৪, ২০১৯

বাউফল(পটুয়াখালী)প্রতিনিধিঃগাজীপুরের ইসলামপুর শরীফ মার্কেটের কাছে গত বুধবার রাতে একটি বাড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিষ্ফোরণে একই পরিবারের মৃত চার জনের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফলের সূর্যমনি ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামে। আজ বৃহষ্পতিবার দুপুরে তাদের লাশ গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছলে এক হৃদয় বিদারক পরিবেশের সৃষ্টি হয়।
সূর্যমনি ইউপির চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বাচ্চু জানান, জীবিকা নির্বাহের তাগিদে শাহ আলম ওরফে মামুন মৃধা (৩৫) ঢাকার গাজীপুরের রেনেসা অ্যাপারেলস নামক একটি পোষাক তৈরীর কারখানায় কোয়ালিটি ইন্সেপেক্টর হিসেবে এবং তার স্ত্রী মুনিরা বেগম ওরফে মুন্নী (৩০) স্ইুং অপারেটর হিসেবে কাজ করতেন। ভাড়া থাকতেন তারা ইসলামপুরের ইকবাল মাহামুদ নামের একজনের বাড়িতে । বায়োজিদ (১০) ও ফাতেমা (৬) নামের দুটি সন্তান রয়েছে তাদের। বাউফলের জনতা বাজার এলাকায় নানা বাড়ি থেকে লেখাপড়া করতো বায়েজিদ ও ফাতেমা। গ্রীষ্মের বন্ধে নানির সাথে দুই ভাই বোন বাবা-মায়ের কাছে বেড়াতে গিয়েছিল। ঈদের ছুটিতে বাবা মার সাথে তাদের গ্রামের বাড়ি আসার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই তারা লাশ হয়ে ফিরে এল। বুধবার রাত ১১ টার সময় মুন্নী তরকারি গরম করার জন্য গ্যাসের চুলা জ্বালানোর সময় হঠাৎ সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হলে সারা ঘরে আগুন ধরে যায়। কোন মতে মুন্নি ও শাহ আলম ঘর থেকে বেড়িয়ে আসলেও পুনরায় তারা ঘরে গিয়ে ছেলে বায়োজিদ ও মেয়ে ফাতেমাকে বের করে আনার চেষ্টাকালে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে পরে এবং আগুনে পুড়ে সন্তানসহ তারা মারা যান। বৃহষ্পতিবার দুপুর আড়াইটার সময় তাদের লাশ গ্রামের বাড়ি বাউফলের সূর্যমনি ইউনিয়নের কালিকাপুরে আনা হলে সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়। এসময় স্বজনদের আহাজারিতে এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। বৃহষ্পতিবার আছরবাদ জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাদেরকে দাফন করা হয়।